ডিইউজে নির্বাচন! সাংবাদিকদেৱ খোলা পাছা, কাপড় দিয়ে না ঢাকলে বাঁশ অব্যাহত থাকবে!

প্রকাশিত

তুহিন সারোয়ারঃ ডিইউজে নির্বাচন! সাংবাদিকদেৱ খোলা পাছা, কাপড় দিয়ে না ঢাকলে বাঁশ অব্যাহত থাকবে। যাদেৱ পাইলস আছে, তাদের জন্য কোয়েলের ডিম।

 

 

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নির্বাচন। এবারের নির্বাচনে অন্যান্যের মধ্যে নির্বাহী সদস্য পদে আাতাউর রহমান – এম এ কুদ্দুস মনোনীত প্যা‌নে‌লে প্রতিদ্বদ্বীতা করছেন দৈনিক “আলোকিত সময়” -এর মফস্বল -সম্পাদক,সাংবাদিক মনসুৱ আহমেদ৷
চুলপাকা, দাড়িপাকা এবং আরও পাকা কাকা সাংবাদিকদের চুরির স্বার্থে সাংবাদিকরা আজ দুই ভাগে বিভক্ত। মনসুৱ আহমেদ ভাই সফল পেশাদাৱ একজন সাংবাদিক তিনি দৈনিক নওরোজ,এৱও মফস্বল সম্পাদক হিসেবে কর্মরত ছাড়াও বিভিন্ন পত্রিকায় কর্মরত ছিলেন। যার রয়েছে দু’যুগেরও বেশি সময়ের পেশাগত দক্ষতা। শুধু সাংবাদিকতাই নয়, তার রয়েছে দীর্ঘদিনের সাংগঠনিক পরিচয়ও। রয়েছে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য নিঃস্বার্থভাবে কাজ করার অসীম ইচ্ছে ও আগ্রহ। দেশ ও জাতির জন্য আজ অত্যন্ত দুঃসময়। মানুষের কোনো ধরনের অধিকার নেই। কথা বলা, লেখা ও ভোট দেওয়াসহ মানুষের সব অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। এসব অধিকার ফিরে পেতে ও হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আজ সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন সাংবাদিকদেৱ ঐক্য। বর্তমান সময়ে এটিই সবচেয়ে জরুরি।” তাই নিজেদের ছোট-খাট দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ভুলে দেশ ও জাতীয় স্বার্থে ডিইইজে নির্বাচনে নির্বাহী সদস্য পদে মনসুৱ ভাইকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করাৱ আহবান জানাচ্ছি ৷ছোট্র একটি উদাহাৱন দিয়ে শেষ করছি সাংবাদিকদের বিভক্তির চিত্র দেখে আমার চোখে ভাসে মানুষের পশ্চাতভাগের খোলা দৃশ্য। দুপাশে দুই পাহাড় দাঁড়িয়ে আছে, দুজনেই নিজেকে হিমালয় মনে করে। আর দুই পাকহাড়ের মাঝখানে চিচিং ফাঁক সুরঙ্গ দিয়ে বাঁশ দিয়ে যায় বাঁশবাবা। সাংবাদিক সমাজ কাপড় দিয়ে পেছনের ভাগ না ঢাকলে এই বাঁশ অব্যাহত থাকবে। ডিমও যাবে। যাদের পাইলস আছে, তাদের জন্য কোয়েলের ডিম।