ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় শিক্ষক লাঞ্ছিত, আটক ১!

প্রকাশিত

মির্জাপুর প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় এক শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে দুদু মিয়া নামে একজন। এ ঘটনার পর তাকে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসী। এসময় অপর দুইজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

সোমবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে উপজেলার উয়ার্শী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর লাঞ্ছিত শিক্ষক শাহিনুর রহমান মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। আটক দুদু মিয়া পাশের ধামরায়ই উপজেলার চৌহাট গ্রামের চানমিয়ার ছেলে।

দুদু মিয়া তার কয়েক বন্ধু মিলে উয়ার্শী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের বিদ্যালয়ে আসা যাওয়ার পথে উত্যক্ত করে থাকে। এছাড়া অনেক দিন বিদ্যালয়ে ঢুকেও ছাত্রীদের সঙ্গে অসদাচরণ করে থাকে।

 

 

এ বিষয়ে অভিযুক্তদের একাধিকবার নিষেধ করলেও তারা ছাত্রীদের নানাভাবে উত্যক্ত করেই আসছিল।

সকাল সাড়ে দশটার দিকে দুদুসহ অপর তিন বন্ধু মিলে স্কুল ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রীদের উত্যক্ত করতে থাকে। পরে ছাত্রীরা গিয়ে শিক্ষকদের জানালে কয়েকজন শিক্ষক ক্যাম্পাস থেকে তাদের চলে যেতে বললে বখাটেরা উত্তেজিত হয়ে শাহিনুর রহমান নামে ওই শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।

এসময় বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষক মিলে বখাটের ধাওয়া করে দুদুকে আটক করলেও অন্য দুই বখাটে পালিয়ে যায়।

পরে আটক দুদুকে মির্জাপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। মির্জাপুর থানার উপ-পরির্দশক বাবুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।