২১ তলা হোটেলের ১৯ তলাই মাটির নীচে!

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের সংজিয়াং জেলার খনি অঞ্চলে মেশিনের শব্দ, কালো ধোঁয়া আর ছিল শ্রমিকদের আনাগোনা। কিন্তু খনি অঞ্চলের এই চেনা চিত্রটা আর কিছু দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ পাল্টাতে চলেছে।

কারণ রুক্ষ এই খনি অঞ্চল আর কিছু দিনের মধ্যে বদলে যেতে চলেছে ঝাঁ চকচকে হোটেলে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী মে মাস থেকেই চালু হয়ে যাবে এই হোটেল। বিলাসবহুল এই অভিনব হোটেলে ছুটি কাটাতে পারবেন পর্যটকেরা। এর কাজ শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালের নভেম্বরে।

আরো পড়ুন :  অবরুদ্ধ উপাচার্যকে উদ্ধার করল ছাত্রলীগ, সংঘর্ষে আহত ১০

এই হোটেলের পুরোটাই মাটির নীচে। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ১০০ মিটার গভীর খনির ৮০ মিটার নীচে পর্যন্ত ছড়িয়ে রয়েছে হোটেলটি। হোটেলের বেশ কিছুটা অংশ রয়েছে জলের নীচেও। আর এটাই এই হোটেলের প্রধান আকর্ষণ। ব্রিটিশ সংস্থা আটকিনস এই হোটেলের নকশা বানিয়েছে।

নাম দেওয়া হয়েছে ‘ডিপ পিট হোটেল’। ২১ তলা হোটেলের ১৭ টি ফ্লোর মাটির নীচে, দু’টি ফ্লোর জলের তলায় এবং দু’টি ফ্লোর মাটির উপরে।

আরো পড়ুন :  যমুনায় ডুবোচরে পণ্যবাহী ১৩০ জাহাজ আটকা

সব মিলিয়ে পর্যটকদের জন্য মোট ৩৮৩টি রুম রয়েছে। হোটেলের মাঝখানে কাচের তৈরি কৃত্রিম জলপ্রপাত রয়েছে। হোটেলের নীচে দাঁড়িয়ে উপরে তাকালে মনে হবে, ঠিক যেন পাহাড়ের গা বেয়ে ৮০ ফুট নীচে গভীর খাদে নেমে আসছে জলপ্রপাতটি।

হঠাৎ খনিকে বিলাসবহুল হোটেলে পরিণত করা হল কেন? আগে পুরোমাত্রায় সচল থাকলেও বিগত কয়েক বছর ধরে পরিত্যক্তই ছিল খনি এলাকাটি। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত চীনের।