৩ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

প্রকাশিত

ডেস্ক : গাইবান্ধা, ময়মনসিংহ ও গাজিপুরে সড়ত দুর্ঘটনায় আটজন নিহত হয়েছেন।

রবিবার (২২ এপ্রিল) ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধা প্রতিনিধি জানান, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে নৈশকোচের সঙ্গে বালু বোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় নারী ও শিশুসহ আহত হয়েছেন অন্তত ১৪ জন।

রবিবার (২২ এপ্রিল) ভোর রাতে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার পান্থপাড়ায় বকচর নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ভিএস পরিবহন নামের একটি নৈশকোচ পঞ্চগড় যাচ্ছিল। কোচটি পান্থপাড়ার বকচর এলাকায় পৌঁছালে ঢাকাগামী একটি বালু বোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই কোচ ও ট্রাক চালকসহ চারজন নিহত হন। এছাড়া, একই ঘটনায় শিশু ও নারীসহ আহত হয়েছেন ১৪ জন। আহতদের উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতদের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আহতদের মধ্যে শিশু ও নারী রয়েছে। তাদের মধ্যে দুই-তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নামও পরিচয় জানা যায়নি। প্রাথমিকভাবে দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে ট্রাক চালকের ঘুমকে দায়ী করেন তিনি।

এদিকে ময়মনসিংহ প্রতিনিধি জানান, ময়মনসিংহের ভালুকায় প্রাইভেটকার-কাভার্ড ভ্যানের সংঘর্ষে বাবা-ছেলসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

রবিবার (২২ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের নিশিন্দা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের লোজজন উদ্ধার কাজে এগিয়ে আসেন। তবে এখন পর্যন্ত নিহততের

নিহতরা হলেন- আব্দুল কাদের মাস্টার (৬৫) ও তার ছেলে জুয়েল (৩৫) এবং প্রাইভেটকারচালক সাগর (৪০)।

নিহত কাদির মাস্টারের বাড়ি উপজেলা জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ি গ্রামে।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুন অর রশিদ জানান, ময়মনসিংহগামী কাভার্ড ভ্যানকে পেছন থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকার ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারের যাত্রী পল্লিচিকিৎসক কাদির মাস্টার নিহত হন। প্রাইভেটকারে থাকা তার তিন ছেলে জুয়েল খান, বাছির খান, বিপ্লব খান ও ড্রাইভার সাগর গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে জুয়েল ও সাগর মারা যান।

এছাড়া সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সিরাজগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় আব্দুর রাজ্জাক (৬৫) নামে সিএনজি চালিত অটোরিকশার এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অটোরিকশা আরও তিন যাত্রী।

রবিবার (২২ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিরাজগঞ্জ-নলকা আঞ্চলিক সড়কের সদর দিয়ার বৈদ্যনাথ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুর রাজ্জাক সদর উপজেলার বহুলী ইউনিয়নের মাছুয়াকান্দির বাসিন্দা।

আহতরা হলেন- সদর উপজেলার বহুলী ইউনিয়নের ডুমুর গোলামী গ্রামের আশরাফ আলী (৪০), শিয়ালকোল ইউনিয়নের সারটিয়া গ্রামের কামাল (৪২) ও কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট গ্রামের মোহাম্মদ আলী (৪৫)।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার আব্দুল হামিদ গণমাধ্যমকে জানান, সিরাজগঞ্জ-নলকা আঞ্চলিক সড়কে যাত্রীবাহী একটি অটোরিকশাকে বিপরতী দিক থেকে আসা একটি ট্রাক ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে গিয়ে আহত হন চার যাত্রী। আহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে আব্দুর রাজ্জাকের মৃত্যু হয়। বাকীদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।