সোমালিল্যান্ডে ঘূর্ণিঝড়ে নিহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

প্রবল ঝড় ও বন্যায় সোমালিল্যান্ডে অর্ধশতাধিক লোক নিহত হয়েছে। পানিতে ভেসে গেছে গবাদি পশু ও শতাধিক খামার। দেশটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বুধবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

১৯৯১ সালে সোমালিয়ার থেকে পৃথক হয় সোমালিল্যান্ড। তবে স্বঘোষিত স্বাধীন এই দেশটি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি।

মঙ্গলবার রাজধানী হারগেইসাতে দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুর রহমান আব্দুল্লাহ ইসমাইল সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ঘূর্ণিঝড়ে এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে।’

আরো পড়ুন :  রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে অনিয়মের অভিযোগে রাস্তার কাজ বন্ধ করল এলাকাবাসী

তিনি জানিয়েছেন, এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছে। তাই মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জাতিসংঘের মানবিক ত্রাণ সম্বন্বয় দপ্তর জানিয়েছে, এডেন উপসাগরে সৃষ্টির তিনদিন পর গ্রীষ্মমন্ডলীয় ঘূর্ণিঝড় সাগর শনিবার সোমালিল্যান্ডের উত্তর-পশ্চিমে ও জিবুতিতে আঘাত হানে। ঝড়ে ৬ লাখ ৬৯ হাজার লোক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে ২৭ জন। অনেক এলাকা তথ্য পেতে দেরি হওয়ায় প্রকৃত সংখ্যা এখনো জানা যায়নি।

আরো পড়ুন :  রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেন আবদুল হামিদ

সংস্থাটি জানিয়েছে, যেসব এলাকায় ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হেনেছে সেসব এলাকার ৮০ শতাংশ গবাদি পশুর মৃত্যু হয়েছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, সোমালিল্যান্ডের প্রায় ৭০০ খামার পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে।