গাজীপুর সিটির উন্নয়নে জাহাঙ্গীরের বিকল্প নাই -মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

প্রকাশিত

মৃণাল চৌধুরী সৈকত :- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নে জাহাঙ্গীরের বিকল্প নাই। সরকার বাজেটে গাজীপুরের উন্নয়নে ১২’শ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। জুনের পরও আওয়ামী লীগই ক্ষমতায় থাকবে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসাবে একমাত্র জাহাঙ্গীরই উন্নয়ন বাজেট সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে পারবেন। আগামী ২৬ জুন নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জাহাঙ্গীরকে জয়যুক্ত করে গাজীপুরের উন্নয়নে সহযোগীতা করুন। মহানগরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ড চান্দনা ঈদগাহ মাঠে বাসন সাংগঠনিক থানা আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি এসব কথা বলেন।

শুক্রবার আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ৩০ নম্বর ওয়ার্ড ছয়দানা বায়তুর জান্নাত সিদ্দিকিয়া জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন। তাছাড়া চান্দনা ঈদগাহ মাঠ, ৩২ এ ঝাজর গ্রামীণফোন ভবনের পূর্বপাশে ও ৪১ নম্বর ওয়ার্ড পুবাইল কলেজ মাঠে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আলোচনায় সকলের দোয়া, সহযোগীতা ও সমর্থন চান।

আরো পড়ুন :  চার দিনের টেস্ট শেষ দুই দিনে!

জুম্মা নামাজের পূর্বে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি আপনাদেরই সন্তান। তিনি নির্বাচিত হলে সরকার প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনার সহযোগীতায় বিশেষ বরাদ্দ নিয়ে গাজীপুরকে একটি পরিকল্পিত গ্রীন সিটি এবং ক্লিন সিটি হিসাবে গড়ে তুলবেন। যেখানে সব শ্রেনী পেশার মানুষ নিজ নিজ চাহিদা মোতাবেক সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবে এমন একটি নগর গড়তে চান। ২৬ জুন নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান।

পুবাইল কলেজ মাঠে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর মার্কা নৌকা। বাংলাদেশে যখনই নৌকা মার্কা ক্ষমতায় ছিল দেশের উন্নয়ন হয়েছে। তিনি গাজীপুরে উন্নয়নের জন্য ২৬ জুন নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জাহাঙ্গীরকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান।

আরো পড়ুন :  নতুন মুখের সন্ধানে খালেদা জিয়া

এসময় অন্যান্যের মধ্যে মোঃ আঃ বারী, এস এম সফিকুল ইসলাম বাবুল, মোঃ সফিকুল আলম, এস এম মোকসেদ আলম, মোঃ আফজাল হোসেন রিপন, মোঃ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, কাজী ইলিয়াস আহমেদ, রিয়াজ মাহমুদ আয়নাল, মোঃ শাহাবুদ্দিন, কাজী আলী হোসেন মাষ্টার, মোঃ কামরুল আহসান সরকার রাসেল, আজিজুর রহমান শিরিষ, মোঃ জাহিদ আল মামুন, হোসনে আরা জুলি প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।