মহানগরে যুবদলের পর আসছে স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি : ফিরছে প্রাণ চাঞ্চল্য

প্রকাশিত

মৃণাল চৌধুরী সৈকত :
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পরাজয়ের পর জেলা ও মহানগর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনগুলোতে নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে আসছে বলে দাবী করছেন স্থানীয় নেতাকমীরা।
ইতিমধ্যে জেলা ও মহানগর যুবদলের আংশিক কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতিপূর্বে জেলা ও মহানগর মহিলা দলের কমিটি গঠন করা হয়। অচিরেই মূল সংগঠন বিএনপি ছাড়াও ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলসহ অন্যান্য অঙ্গ-সংগঠনের কমিটি গঠন করা হবে বলে দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে প্রায় ১৬ বছর পরে যুবদলের জেলা ও মহানগর এর নতুন দুটি কমিটি গঠনে অপ্রীতিকর ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অন্যান্য কমিটি গঠনের ব্যাপারে সতর্ক অবস্থান নিয়েছে দলের হাইকমান্ড। কমিটি গঠনে একই অঞ্চলের নেতাদের আধিক্য যাতে না থাকে এবং বিতর্কিতরা যাতে কমিটিতে স্থান না পায় সে ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখা হচ্ছে। যুবদলের পর এবার স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি গঠন প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান নেতৃবৃন্দ। তবে সদ্য ঘোষিত মহানগর যুবদল কমিটির মত জটিলতার কারণে সহসাই স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি ঘোষণা হচ্ছে না বলে জানা গেছে।
গাজীপুর মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি পদে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের আইনজীবী প্যানেলের সদস্য গাজীপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম খান বিকি ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আরিফ হোসেন হাওলাদারের নাম শোনা যাচ্ছে। সাধারণ সম্পাদক পদে টঙ্গী থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ও টঙ্গী অঞ্চল দলিল লেখক সমিতির সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ভেন্ডার ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সদস্য হাসিবুল হাসান মুন্নার নাম শোনা যাচ্ছে।
সদ্য ঘোষিত মহানগর যুবদলের কমিটিতে টঙ্গী অঞ্চল থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করায় অন্যান্য অঞ্চলে বিরাজমান ক্ষোভ প্রশমনেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। যুবদলের কমিটির অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পদ গুলোতে বাকি অঞ্চলের নেতাদের সমন্বয়ে পূরণ করা হচ্ছে।
আগামীতে অন্যান্য কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে যাতে এ ধরণের বৈষম্য না হয় সে ব্যাপারেও দলের হাইকমান্ড থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী যথাক্রমে আরিফ হোসেন হাওলাদার ও জাহাঙ্গীর আলম ভেন্ডার টঙ্গীর বাসিন্দা হওয়ায় আঞ্চলিক বৈষম্য দূর করতে তাদের যে কোন একজন মহানগর কমিটি থেকে বাদ যাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আরিফ হোসেন হাওলাদারকে কেন্দ্রীয় কমিটির একটি গুরুত্বপূর্ণ সম্পাদকীয় পদে ন্যাস্ত করে আঞ্চলিক বৈষম্য দূর করার চিন্তা ভাবনা চলছে বলেও জানা গেছে। এক্ষেত্রে নগরির পূবাইল অঞ্চলের অধিবাসী অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম খান বিকিকে সভাপতি ও টঙ্গীর অধিবাসী জাহাঙ্গীর আলম ভেন্ডার অথবা জয়দেবপুর থেকে হাসিবুল হাসান মুন্নাকে সাধারণ সম্পাদক করার প্রস্তাব করা হচ্ছে।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রণি ভূমিকা রেখেছেন এবং একাধিক মামলা ও হামলার শিকার হয়েছেন, মিথ্যা মামলায় জেল খেটেছেন এমন নেতাদেরকেই কমিটিতে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে নজরুল ইসলাম খান বিকি, আরিফ হোসেন হাওলাদার ও জাহাঙ্গীর আলম ভেন্ডার বহু রাজনৈতিক মামলার আসামী হয়ে একাধিকবার জেল খেটেছেন।
গাজীপুর মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটির ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করা হলে দলটির কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, তারা শিগগির গাজীপুরে একটি শক্তিশালী কমিটি দিতে যাচ্ছেন।

6Shares
আরো পড়ুন :  নেত্রকোনায় ৮মার্চ নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন সপ্তাহ উপলক্ষে মহিলা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন!!!