জামালপুরে ১৬ স্কুলছাত্রীকে ইয়াবা খাওয়ালো দুই ছাত্র, এরপর…

প্রকাশিত

জামালপুর প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ১৬ স্কুলছাত্রীকে কৌশলে ইয়াবা খাওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে তাদের দুই সহপাঠী ছাত্রের বিরুদ্ধে। গত রোববার দুপুরে উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের বাঁশবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। টানা তিন দিন অসুস্থ থাকার পর বুধবার ঘটনাটি প্রকাশ করে ওই ছাত্রীরা।

অভিযুক্তরা হচ্ছে- উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে রাকিব ও কড়বাড়ি গ্রামের সোহেল মিয়ার ছেলে আবির। তারা দুইজনই ওই বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। এরই মধ্যে তাদেরকে বিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

অসুস্থ এক ছাত্রীর বাবা বলেন, রোববার বিকেলে বিদ্যালয় ছুটির পর মেয়ে বাড়িতে ফিরলে তাকে অসুস্থ দেখা যায়। এর কারণ জানতে চাইলে সে জানায়, তাদের বখাটে সহপাঠী রাকিব ও আবির দুপুরে কৌশলে ইয়াবা খাইয়েছে। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি বিদ্যালয়ের ওই শ্রেণির অন্য ছাত্রীদেরও ইয়াবা সেবন করানো হয়েছে। লোক-লজ্জার কারণে তাদের পরিবারের লোকজন বিষয়টি চাপিয়ে রেখেছে এবং ছাত্রীদের হাসপাতালে না নিয়ে স্থানীয়ভাবে গোপনে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। পরে ছাত্রীরা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে বুধবার সকাল থেকে বিষয়টি জানাজানি হয়।

আরো পড়ুন :  বেনজীর-আছাদুজ্জামানসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তার পদোন্নতি

অসুস্থ ছাত্রীরা জানায়, ফুটবল খেলায় আহত সহপাঠী আতিককে দেখতে যাওয়ার জন্য ওষুধ কেনার নাম করে রাকিব ও আবির তাদের থেকে টাকা তোলে। পরে ওষুধ না কিনে ওই টাকা দিয়ে ইয়াবা এনে কৌশলে তাদের সেবন করায়।

আরো পড়ুন :  পদ্মা সেতু নয়, খালেদার রাজনীতি জোড়াতালির

এ ব্যাপারে বাঁশবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম বলেন, বিষয়টি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আনোয়ারার কাছ থেকে জেনেছি। পরে জরুরি বৈঠকে বসে অভিযুক্ত রাকিব ও আবিরকে বিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে এখনো কেউ লিখিত বা মৌখিক অভিযোগ দায়ের করেনি। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

83Shares