নাসিরনগরে আওয়ামীলীগে ১ডজন,বিএনপির একক, মাঠে প্রচারণায় রয়েছে জাতীয় পার্টি,খেলাফত মজলিশ ও ইসলামী ফ্রন্ট।

প্রকাশিত

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ

সামনে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নাসিরনগরে প্রার্থীদের হাঁসি মুখে হাত বাড়ানোর মাত্রা বেড়ে গেছে। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশের অন্যান্য এলাকার ন্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১, সংসদীয় ২৪৩ আসন নাসিরনগরে আওয়ামীলীগ, বি.এনপি ও মহাজোটের শরীক দল জাতীয় পার্টি, খেলাফত মজলিশ ও ইসলামী ফ্রন্ট থেকে সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা প্রচার প্রচারণা ও দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন। ১৩টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ১ নাসিরনগর আসন। অত্র আসনে লোকসংখ্যা সাড়ে ৩ লক্ষ। মোট ভোটার সংখ্যা ২ লক্ষ ১৩ হাজার ৯ শত ৭০ জন। এর মধ্যে পুরুস ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ১০ হাজার ৪ শত ৪৭জন ও মহিলা ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৩ হাজার ৫ শত ২৩ জন। ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রচার প্রচারনা। ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর অত্র আসনের সাংসদ মাননীয় মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী এডঃ ছায়েদুল হকের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়ে পড়ে। প্রয়োজন হয় উপ নির্বাচনের। ১৩ মার্চ উপ নির্বাচনে সংসদ সদস্য হিসেবে বিজয়ী হন বি,এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম। ছয় মাস অতিবাহিত হতে না হতেই দেখা দেয় জাতীয় নির্বাচনের। আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে আওয়ামীলীগ থেকে যারা প্রচার প্রচারনা শুরু করেছেন তারা হলেন- বর্তমান সাংসদ বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম, মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী পতœী আলহাজ্ব দিলশাদ আরা মিনু, উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার,কুমিল্লা ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও লন্ডন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সৈয়দ এহছান, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগির সাবেক সিনিয়ন সহ সভাপতি এম এ করিম, বিশিষ্ট শিল্পপতি, সমাজ সেবক ও কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নাজির মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি এ,কে,এম আলমগীর হক,কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী প্রজন্মলীগ ইঞ্জিঃ মোহাম্মদঃ ইখ্তেশামুল কামাল,দৈনিক ভোরের চেতনার সম্পাদক মোঃ আলী আশরাফ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট কেন্দ্রীয় কমিটির আইনবিষয়ক সম্পাদক ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সভাপতি এডঃ রাখেশ চন্দ্র সরকার, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদ নাসিরনগর উপজেলা শাখার সভাপতি আদেশ চন্দ্র দেব,কেন্ত্রীয় যুব মহিলা লীগের শিক্ষা, পাঠাগার ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এম,বি কানিজ।

 

 

অপর দিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বি,এন,পি থেকে একক প্রার্থী হিসেবে বিশিষ্ট শিল্পপতি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও নাসিরনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি, আলহাজ্ব সৈয়দ এ,কে এম একরামুজ্জামান (সূখন)।

তাছাড়াও মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য ও নাসিরনগর উপজেলা জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহানুল করিম (গরীবুল্লাহ সেলিম) প্রচার প্রচারণা চালিয়ে গেলেও তার বড় ভাই জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা রেজোওয়ান আহম্মদ ও মনোনয়ন প্রত্যাশী। তাছাড়া ইসলামী ঐক্য জোটের প্রার্থী হিসেবে মাওলানা একে এম আশরাফুল আলমের নামও শোনা যাচ্ছে। জোটের প্রার্থী হিসেবে খেলাফত মজলিশের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বক্তা হাফেজ মাওলানা যুবায়ের আহম্মদ আনসারী ও ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক এডঃ ইসলাম উদ্দিন দুলালও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।