সাভারে শিক্ষককে ছাত্রলীগের অাহবান ফরম ফিলাপে বাড়তি টাকা না নিতে

প্রকাশিত

সাভার সংবাদদাতা : শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নিয়মকে তোয়াক্কা না করে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম ফিলাপের জন্য বাড়টি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারায়ণ সরকারের বিরুদ্ধে।
বৃহস্পতিবার সকালে অতিরিক্ত ফি অাদায় না করতে অাহবান জানান সাভার উপজেলা ছাত্রলীগের কর্ণধার অাতিকুর রহমান অাতিক।
সাভার উপজেলা ছাত্রলীগের কর্ণধার অাতিকুর রহমান জানান, বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়সহ সাভারের কয়েকটি স্কুল অতিরিক্ত ফি অাদায় করছে। জানা যায়, অতিরিক্ত ফি দাবি করলে দুদকের হটলাইন ১০৬ নাম্বারে ফোন দেওয়া যাবে।
বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারায়ণ সরকার বলেন, ফরম ফিলাপের জন্য মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সাড়ে ৩হাজার টাকা নেয়া হয়েছে।  আর বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেয়া হয়েছে তিন হাজার ৭০০ টাকা। এবিদ্যালয় থেকে এবার ৫৩ টি কিন্ডারগার্টেনের প্রায় ১ হাজার শিক্ষার্থী এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে।  ফলে তাদের ফরম ফিলাপ বাবদ লক্ষ লক্ষ টাকা আয় হচ্ছে।  অথচ শিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে বলা হয়েছে  মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১৪৪৫ টাকা আর বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১৫৬৫ টাকার বেশী নেয়া যাবে না।  কিন্তু মন্ত্রনালয়ের নির্দেশের তোয়াক্কা না করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বাড়তি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রধান শিক্ষক নারায়ণ সরকার।
বাড়তি টাকা নেয়ার বিষয়ে দুদককে অবহিত করার প্রসঙ্গে নারায়ণ সরকার বলেন, দুদকের কাম দুদক করবো। তারা সরকারী বেতন পায়, ঘুষ খায় আমরাতো আর তা খাই না, তাই বেশী নিতে হয়।
বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সজীব হোসেন কাজল, মনসুর মিয়াসহ অনেকেই  জানান, আমাদের কাছে অতিরিক্ত ফি দাবি করা হয়েছে।
সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাসেল হাসান জানান, সরকার নির্ধারিত ফি নিতে হবে। অতিরিক্ত ফি আদায়কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এ ব্যাপারে বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম ঠান্ডু মোল্লা বলেন, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক জানান, বাড্ডা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের দুর্নীতির খবর সকলের জানা।
Shares
আরো পড়ুন :  জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা