ফলাফল শূন্য হলেও আলোচনা ভালো -প্রফেসর ড. তারেক শামসুর রেহমান

প্রকাশিত

স্টাফ রিপোর্টার : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজনীতি ও অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক প্রফেসর ড. তারেক শামসুর রেহমান বলেছেন, সরকার ও ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে দুই দফা সংলাপের পর দৃশ্যমান ফলাফল শূন্য মনে হতেই পারে। তবে সংলাপের উদ্যোগটা ভালো। আলোচনা অব্যাহত থাকার অঙ্গীকার আরো ভালো। নি:সন্দেহে এটা অনেক বড় অগ্রগতি। এর মাধ্যমে দীর্ঘদিনের সংকীর্ণতা কিছুটা হলেও দূরীভূত হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা দেখেছি প্রথম দফা সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা সাত দফা দাবির মধ্যেই বেশি বক্তৃতা করেছেন। তারা তাদের যুক্তিগুলো তুলে ধরেছেন। অপরপক্ষে ক্ষমতাসীন দলও দাবিগুলোর সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতা এবং অতীতের বিভিন্ন তিক্ত অভিজ্ঞতার বিষয়টি তাদের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের সাথে ভাগাভাগি করে। এতে আলোচনার কিছুটা উত্তেজনা ছড়ালেও তা শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়। তারেক শামসুর রেহমান বলেন, একটি বড় পরিসরে আলোচনা হয়েছে, আরেকবার ছোট্র পরিসরে আলোচনা হয়েছে। এরপর হয়তো আরো ছোট্ট পরিসরে আলোচনা হবে। যদিও দুই বারের আলোচনায় ঐক্যফ্রন্ট সাত দফা দাবির কোনো দফার ব্যাপারেই শাসক দলের পূর্ণ সায় পায়নি। তবে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা তুলে নেওয়া, নতুন মামলা না দেওয়া, গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দেওয়া, সভা-সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার ব্যাপারে শাসক দলে ঐক্যফ্রন্টকে যে আশ্বাস দিয়েছে তাও ইতিবাচক। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীও তার উপর আস্থা রাখতে বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন করে দেখিয়ে দিতে চান, তার অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব। এই ঝুঁকি বিএনপি বা ঐক্যফ্রন্ট নেবে কী না জানি না, তবে সুষ্ঠু নির্বাচন করার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর এই আন্তরিক মনোভাব থাকলে তা ইতিবাচক। এই রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, আমরা আশা রাখতে চাই যে, উভয় পক্ষ আলাপ আলোচনা অব্যাহত রাখবে এবং একটি সমঝোতায় পৌঁছবে।

Shares
আরো পড়ুন :  ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিককে গলা কাটার হুমকি