ভিকারুননিসার ৩ শিক্ষককে বরখাস্ত, এমপিও বাতিল

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় ভিকারুননিসা নূন স্কুলের ৩ শিক্ষককে বরখাস্তসহ বিভাগীয় মামলার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

একই সঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্তে শিক্ষার্থী আত্মহননের প্ররোচণার জন্য এই তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাসহ অন্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বুধবার ( ৫ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জানান, ভিকারুননিসা শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীকে ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’র অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে মন্ত্রণালয়ের গঠিত তিন সদস্যের কমিটি।

আরো পড়ুন :  ভুয়া এএসপির ফের রিমান্ড

এই তিনজন শিক্ষকের এমপিও বাতিল করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তিনি বলেন, ভিকারুননেসা স্কুলের দোষী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রতিষ্ঠানটির সব ধরণের অনিয়ম উঠে আসছে।অভিভাবকরাও নানা অনিয়মের কথা বলেছেন। ওই ঘটনার জন্য দায়ী ৩ জনের নাম এসেছে। প্রতিবেদনের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার ও শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছে কমিটি। প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে তাদের বরখাস্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আরো পড়ুন :  আ. লীগের নেতারাই মাদক ব্যবসা করে: মোশাররফ

প্রসঙ্গত, পরীক্ষায় খারাপ ফল করার ভিকারুননিসার ছাত্রী অরিত্রিকে অভিভাবককে ডেকে অপমান করেন শিক্ষকরা।অভিভাবকের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেন অরিত্রি।

এ ঘটনায় দু’দিন ধরে ভিকারুননিসায় বিক্ষোভ চলছে।গতকাল বিক্ষোভের প্রথম দিনে শিক্ষা মন্ত্রী স্কুলে গিয়ে এ ঘটনার সঠিক বিচারের আশ্বাস দেন।

Shares