দ্বিতীয় ‘ডাবল’ তুলে ছুটছেন মুমিনুল

প্রকাশিত

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) গতকাল প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলের বিপক্ষে শুরুর দিনেই সেঞ্চুরি তুলে নেন মুমিনুল হক। ১৬৯ রানে অপরাজিত থাকায় আজ সবাই তাঁর ‘ডাবল সেঞ্চুরি’ দেখার অপেক্ষায় ছিলেন। মুমিনুল হতাশ করেননি। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় ‘ডাবল সেঞ্চুরি’ তুলে নিয়েছেন ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের এ ব্যাটসম্যান। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ২১৮ রানে ব্যাট করছিলেন মুমিনুল।

বিকেএসপি থেকে উঠে আসা এ ব্যাটসম্যানের ‘ডাবল’ তুলে নেওয়ার দিনে সেঞ্চুরি পেয়েছেন বিকেএসপিরই আরেক ছাত্র জাকির হাসান। সর্বশেষ বিপিএলে দারুণ খেলা এ ব্যাটসম্যান ১১৯ রান করে সাকলাইন সজীবের শিকার হন। লাঞ্চ বিরতির আগে ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের স্কোর ৬ উইকেটে ৪৭৬ রান। মুমিনুলের সঙ্গে উইকেটে রয়েছেন সোহাগ গাজি (১৩*)।

আরো পড়ুন :  গাজীপুরের টঙ্গী মডেল থানায় নতুন ওসির যোগদান

বিকেএসপিতে আজ দ্বিতীয় দিনে প্রথম পানি পানের বিরতির পরই মুমিনুল তুলে নেন ‘ডাবল’ আর জাকির পেয়ে যান ‘সেঞ্চুরি’। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ‘ডাবল’ তুলে নিতে জাতীয় দলের এ ব্যাটসম্যান খেলেছেন ২৫৫ দল। এ পর্যন্ত ১৯ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় সাজানো ইনিংসটি কত দূর টানতে পারবেন তিনি? প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তাঁর ক্যারিয়ারসেরা ২৩৯ রানের ইনিংসটি কিন্তু টপকে যাওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি। এমনকি ‘ট্রিপল’ সেঞ্চুরি তুলে নিলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই। ২০১৫ সালে জাতীয় ক্রিকেট লিগে বরিশালের বিপক্ষে ২৩৯ রানের ইনিংসটি খেলেছিলেন মুমিনুল।

আরো পড়ুন :  নতুন বছরে ছয়টি ছবি

মুমিনুল ‘ডাবল’ তুলে নিলেও সিলেটে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের বিপক্ষে মিজানুর রহমান হতাশ করেছেন। ঠিক হতাশা নয় আক্ষেপই বেশি। আগের দিন ৪৯ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন এ ওপেনার। আজ তিন অঙ্কে পৌঁছাতে পারলে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়তেন মিজানুর। কিন্তু তা হয়নি। ব্যক্তিগত ৬৪ রানে মধ্যাঞ্চলের স্পিনার মোশাররফ হোসেনের শিকার হন তিনি।

আরো পড়ুন :  কমেছে সবজির দাম

লাঞ্চ বিরতির আগে বিসিবি উত্তরাঞ্চলের স্কোর ৪ উইকেটে ১৫৮। উইকেটে ছিলেন জহুরুল ইসলাম (১৭*) ও আরিফুল হক (১৪*)। ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের হয়ে ৩ উইকেট নেন তাসকিন।