গাঁজা রফতানির প্রতিযোগিতায় এবার অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত

অস্ট্রেলিয়ার সরকার বলছে, চিকিৎসায় ব্যবহৃত গাঁজার রফতানিতে তারা শীর্ষস্থান দখল করতে চায়।

কানাডা এবং নেদারল্যান্ডস দেশের বাজারে গাঁজা বিক্রির পর এখন রফতানি শুরু করেছে। অস্ট্রেলিয়া এই দুটি দেশকে টেক্কা দিতে চায়। এজন্য তারা আইন পরিবর্তন করার পরিকল্পনা করছে।

ওদিকে উরুগুয়ে এবং ইসরাইলেরও একই রকম পরিকল্পনা রয়েছে।

ক্যান্সারের কেমোথেরাপী চিকিৎসায় রোগীর মাথা ধরা ও বমিভাব কমাতে, এইডসের রোগীর ক্ষুধা জাগাতে, এবং পুরোনো বাত ও মাংসপেশীতে ব্যথা দূর করতে ডাক্তাররা গাঁজার ব্যবহারে অনুমতি দিয়ে থাকেন।

আরো পড়ুন :  মৌলিক চাহিদাগুলো জনগনের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়া হবে …………………চীফ হুইপ আসম ফিরোজ

অস্ট্রেলিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী গ্রেগ হান্ট বলছেন, তাদের এই পরিকল্পনার ফলে দেশের মধ্যে রোগীরাও উপকৃত হবেন।

ঐ দেশ ২০১৬ সালেই চিকিৎসায় গাঁজার ব্যবহার আইনসিদ্ধ করেছে। তবে বিনোদনের জন্য গাঁজার ব্যবহার অস্ট্রেলিয়ায় এখনও নিষিদ্ধ।

আরো পড়ুন :  পরকীয়া নাটক সাজিয়ে রাতভর প্রবাসীর স্ত্রীকে নির্যাতন

হান্ট বলছেন, এই সিদ্ধান্তের ফলে অস্ট্রেলীয় গাঁজা চাষীরাও আর্থিকভাবে উপকৃত হবেন।

সারা বিশ্বে চিকিৎসার জন্য যে গাঁজা চাষ হয় তার অর্থকরী মূল্য ২০২৫ সাল নাগাদ ৫৫০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে গাঁজার ব্যবহারের ওপর নিষেধ্জ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে।

2Shares