থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেলেন তরুণী

প্রকাশিত

নিউজ রংপুর:মুঠোফোনে প্রেম। এরপর বিয়ে না করেই স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস। এখন বিয়েতে অস্বীকৃতি জানানোই হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন রংপুর কারমাইকেল কলেজের মাস্টার্সের এক ছাত্রী। এ ঘটনায় প্রেমিক ইমরানকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালি থানায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নগরীর কামালকাছনা এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে ও একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক ইমরানের সঙ্গে মুঠোফোনে পরিচয় হয় ওই কলেজছাত্রীর। এরপর বিয়ে না করেই গোপনে তারা বাসা ভাড়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করেন।

আরো পড়ুন :  ১২ হাজার ইয়াবাসহ উখিয়ায় দু’জন আটক

সম্প্রতি ওই কলেজছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে অস্বীকৃতি জানান ইমরান। এ নিয়ে বুধবার রাত ৯টার দিকে থানায় দু’জনকে নিয়ে আলোচনার উদ্যোগ নেয় পুলিশ। এ সময় ইমরান বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে ওই কলেজছাত্রী থানার বাথরুমে ঢুকে হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

আরো পড়ুন :  ২৬ অক্টোবর নির্বাচনকালীন সরকারের আকার নিয়ে সিদ্ধান্ত : সেতুমন্ত্রী

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মোক্তারুল আলম বলেন, প্রেমিক ইমরানকে আটক করা হয়েছে এবং ওই কলেজছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Shares