রাঙ্গুনিয়ায় রাতে পরীক্ষা দিচ্ছেন ৩৭ জন এসএসসি শিক্ষার্থী

প্রকাশিত

রাঙ্গুনিয়া সংবাদদাতা : রাঙ্গুনিয়ায় ৭ বিষয়ে রাতে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন ৩৭ জন শিক্ষার্থী। সেভেন্থ ডে অ্যাডভেন্টিস্ট খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের এই পরীক্ষার্থীরা ধর্মীয় বিধিনিষেদের কারণে দিনের বেলার পরীবর্তে রাতে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন বলে জানা যায়। উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ইতিমধ্যেই তাঁরা বাংলা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন, শনিবার  রাতে অংশ নিয়েছেন গণিত পরীক্ষায়।
এছাড়াও আগামী ১৬ ও ২৩ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) তারিখেও তারা আরও ৫টি বিষয়ে এসএসসি পরীক্ষায় রাতে অংশ নিবেন। পরীক্ষা রাতে দিলেও পরীক্ষাগুলোতে তাঁরা কেন্দ্রে প্রবেশ করেন অন্যান্য পরীক্ষার্থীদের সাথে সকাল নয়টায়।
সেখানে একটি কক্ষে দীর্ঘ ৯ ঘন্টা অপেক্ষার পর সন্ধ্যা ৬টায় তাদের পরীক্ষা শুরু হয়। রাতে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৩৭ পরীক্ষার্থীর সবাই বাঙালহালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।
সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব চন্দন মহাজন বলেন, ‘খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের ‘সেভেন্থ ডে অ্যাডভান্টেজ সম্প্রদায়ের রীতি অনুযায়ী’ সপ্তাহের সাত দিনের মধ্যে একদিন শনিবার স্বাভাবিক কাজ না করে সৃষ্টিকর্তার ধ্যানে মগ্ন থাকেন।
বিশেষ এই দিনে তারা সেবামূলক কাজ ছাড়া অন্য কোন কাজ করেন না। সেজন্য ওই সম্প্রদায়ের পরীক্ষার্থীরা দিনের বেলায় পরীক্ষায় অংশ নেন না। তাই তাদের সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে শিক্ষাবোর্ড রাতের বেলা পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। তারা অন্যান্য পরীক্ষার্থীদের সাথে সকাল ৯টায় কেন্দ্রে প্রবেশ করেন, সারাদিন একটি কক্ষে আবদ্ধ থাকার পর সূর্যাস্তের পর একই প্রশ্নপত্র দিয়ে তাদের কাছ থেকে পরীক্ষা নেওয়া হয়। এবার এই কেন্দ্রে মোট ৩৫৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ওই সম্প্রদায়ের ৩৭ জন পরীক্ষার্থীর জন্য বিশেষ এই ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।’
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নুরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘এবার এসএসসি পরীক্ষার রুটিন অনুযায়ী মোট চার শনিবারে তারা ৭ বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে গত ২ ফেব্রুয়ারি বাংলায় অনিয়মিত ৩ জন সহ ৩৬ জন, ৯ ফেব্রুয়ারি গণিত পরীক্ষা ৩৩ জন ওই সম্প্রদায়ের পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন।
এছাড়াও আগামী শনিবার ১৬ (ফেব্রুয়ারি) রুটিন অনুযায়ী ৩৩ জন পরীক্ষার্থী যথাক্রমে রসায়ন, পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ে এবং এরপরের শনিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ৩৭ জন শিক্ষার্থী যথাক্রমে বিজ্ঞান ও উচ্চতর গণিত পরীক্ষায় অংশ নিবেন। রাতের বেলায় বিদ্যুতের আলোতে পরীক্ষা দিলেও তারা সুশৃঙ্খল ও সুন্দর পরিবেশে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পায়। ২০১২ সাল থেকে ওই কেন্দ্রে বিশেষ অনুমতি নিয়ে এভাবে পরীক্ষা দিয়ে আসছেন ওই সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা।
Shares
আরো পড়ুন :  আর নির্বাচন বয়কট করা যাবে না, আমরা শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবো : ড. কামাল