ঢাবি এলাকা নিরাপত্তার চাদরে

প্রকাশিত

বিশেষ প্রতিবেদক: রাত পোহালেই বহুল প্রতীক্ষিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কেন্দ্রীয় ছাত্র ইউনিয়ন (ডাকসু) নির্বাচন। সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে ক্যাম্পাসসহ পুরো এলাকা। ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানো হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশের রাস্তা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। রোববার সন্ধ্যার পর থেকে এই এলাকায় বহিরাগত প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পুলিশ।

রোববার বিকেলে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া  বলেন, ‘ডাকসু হচ্ছে মিনি ক্যাবিনেট। গুরুত্বপূর্ণ এ নির্বাচন, এ কারণে নির্বাচনকে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করছি শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শেষ হবে।’

আরো পড়ুন :  ফের প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা হলেন জয়

রোববার দুপুরে সরেজমিন দেখা গেছে, অন্যদিনের চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা অনেকটাই ফাঁকা। শিক্ষক শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা ছাড়া অন্য লোক তেমন দেখা যায় নি। এরই মধ্যে বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে তল্লাশিও চলছিল। বিভিন্ন স্পটে এ তল্লাশি করছিল পুলিশ। ক্যাম্পাস এলাকার দোকানপাটও এক প্রকার বন্ধ ছিল। যাও ছিল কয়েকজন ভ্রাম্যামাণ হকার।

এদিকে বিভিন্ন হলে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানো হয়েছে। মোট ১১৩টি সিসি ক্যামেরা নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ করছে। হলগুলোর সামনেও বাড়তি পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

আরো পড়ুন :  জাতীয় পার্টি সুশাসন ফিরিয়ে আনতে চায় : ঠাকুরগাওয়ে এরশাদ

নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রোববার সন্ধ্যার পর থেকে শাহবাগ, নীলক্ষেত, পলাশী, রুমানা ভবন ক্রসিং, শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং, দোয়েল চত্বর ও জগন্নাথ হল ক্রসিং ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হবে। যা সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।

অবশ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘নির্বাচনের পরিবেশ যাতে কেউ নষ্ট করতে না পারে, সেজন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা ভোটের অপেক্ষায় আছি। ভোটার তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন।’

Shares