খালেদাকে অন্য হাসপাতালে নেয়ার দরকার নেই’

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক-

কারাবন্দি ও চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বাংলাদেশে অন্য কোনো হাসপাতালে নেয়ার দরকার আছে বলে মনে করেন না বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরিচালক ব্রি. জে. ডা. এ কে মাহবুবুল হক।

সোমবার (১ এপ্রিল) বিএসএমএমইউ’র পরিচালকের কনফারেন্স কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে দুপুর ১২টা ৩৬ মিনিটে কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে নেয়া হয়।

খালেদা জিয়া ও বিএনপির পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরে একটি স্পেশালাইজড হাসপাতালে নেয়ার দাবি ছিল সে বিষয়টি আপনারা কীভাবে দেখছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএসএমএমইউ বাংলাদেশে একটি সুপার স্পেশালাইজড হসপিটাল। এই হাসপাতালের চিকিৎসাব্যবস্থা অনেক উন্নত এবং এখানে অনেক ভালো ভালো চিকিৎসক আছেন। আমার মনে হয় না তাকে এখান থেকে বাংলাদেশের অন্য কোনো হাসপাতালে নেয়ার দরকার আছে। এছাড়া উনি বোর্ড এবং আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন।

বিএসএমএমইউ’র পরিচালক বলেন, দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিট থেকে তিনি (খালেদা জিয়া) ৬২১ নম্বর ক্যাবিনে আছেন। উনি ভালো আছেন। আমরা তার জন্য পাঁচ সদস্যের একটি নতুন মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছি। আমিসহ মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা তার সঙ্গে কথা বলেছি। বোর্ড সদস্যরা তার সমস্যা জানতে চেয়েছেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে কিছু ওষুধ প্রেসক্রাইব করেছে। তিনি স্বাচ্ছন্দ্যে বোর্ডের সঙ্গে কথা বলেছেন।

খালেদা জিয়া কী কী সমস্যার কথা জানিয়েছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. এ কে মাহবুবুল হক বলেন, তার হাত ও পায়ের জয়েন্টে পেইন। ডায়াবেটিস স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি, সকালে ১৪ ছিল। শরীর দুর্বল, খাওয়ায় অরুচি ও ঘুম কম হচ্ছে। ওনার ক্যাবিনে পর্যাপ্ত হাঁটার জায়গা আছে, উনি সাপোর্ট নিয়ে হাঁটেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা-সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তার নিরাপত্তা জন্য ক্যাবিনের ভেতরে নারী কারারক্ষী, নারী পুলিশ এবং বিএসএমএমইউ’র গেটে কারা ও থানা পুলিশ এবং আনসার সদস্যরা আছেন।

নতুন করে কেন মেডিকেল বোর্ড করা হয়েছে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগের বোর্ডের সভাপতি আব্দুল জলিল অবসরে গেছেন। তাই তার জায়গায় নতুন চিকিৎসক দেয়া হয়েছে। অন্য কোনো কারণ নেই।