বাংলা সাহিত্যের এক অনন্য ও অসাধারণ শব্দচাষী কবি আব্দুল্লাহেল বাকী

প্রকাশিত

হাফছা আহমেদ মিতু-

কবি মো: আব্দুল্লাহেল বাকী আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি। তিনি একাধারে একজন কবি, ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, ছোটগল্প লেখক।থেকে তিনি আধুনিক বাংলা কবিতাকে নতুন আঙ্গিকে, চেতনায় ও বাক্যভঙ্গীতে বিশেষভাবে সমৃদ্ধ করেছেন। তিনি আধুনিক বাংলা কবিতার শহরমুখী প্রবণতার মধ্যেই ভাটি বাংলার জনজীবন, গ্রামীণ আবহ, নদীনির্ভর জনপদ, চরাঞ্চলের জীবন প্রবাহ এবং নরনারীর চিরন্তন প্রেম-বিরহকে তার কবিতায় অবলম্বন করেন। আধুনিক বাংলা ভাষার প্রচলিত কাঠামোর মধ্যে স্বাভাবিক স্বতঃস্ফূর্ততায় আঞ্চলিক শব্দের প্রয়োগ তার অনন্য কীর্তি।

একজন কবির গ্রন্থই সফলতার মুখ দেখে না, সকল গ্রন্থই মানুষের মুখে মুখে প্রচারও হয় না। কিছু কিছু গ্রন্থ আছে যা মানুষকে সমাজকে কালকে আষ্টেপৃষ্ঠে বেধে রাখে, হৃদয় গভীরে তোলপাড় সৃষ্টি করে; মনন চেতনাকে জাগ্রত করে আন্দোলিত করে। তখন সেসব গ্রন্থই /কবিতা চির অমরতার রূপলাভ করে থাকে। আর তাই যুগ যুগ ধরে কাল থেকে কালান্তরে যুগ থেকে যুগান্তরে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে অমর কবিতাগুলো পাঠককে মানুষকে প্রেরণা দেয় ঠিক তেমনি তার কিছু  কাব্যগ্রন্থ,পান্তা, চোখের দেখা মনের কথা ।

 

 

তার কবিতাপাঠে নতুন করে বাঁচতে শেখায়, বিশ্বাসের জায়গাকে বদ্ধমুল করে তোলে আর বিবেক চেতনাকে শাণিত করে। তার কবিতার বইগুলো পাঠে পাঠককে একেবারে নতুন এক ভুবনে ভাবনার জগতে অন্য রূপ-রসের স্রোতে টেনে নিয়ে যায় বহমান নদীর মতো। কবি তার কাব্যগ্রন্থে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে শিল্পের বিচারে অনেক বেশি মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়েছেন।

কবি মো: আব্দুল্লাহেল বাকীর অসংখ্য চমৎকার সুন্দর সুন্দর মধুময় নান্দনিকময় আর চেতনাময় কবিতা এবং ছড়ার মধ্যে, মায়ের কোলে যাদু হাসে, আমরা নতুন কুড়ির মতন, নতুন শেখা। রক্তিম আভা,নি:শব্দ বিলাপ, বিবর্ণ ভালবাসা, আপন জিজ্ঞাসা, আপনারে খুজি,শেষ বেলার ছায়া । তার অনেক ভাল কবিতার মতো অনেক বেশি চেতনাধর্মী এবং আবেগময়। কবি এই কবিতায় একজন দেশপ্রেমিক স্বাধীনতাপ্রিয় প্রতিবাদী তরুণ বিপ্লবীর রক্তাক্ত শার্টের বর্ণনা দিয়েছেন। এখানে দেশপ্রেমের আত্মত্যাগের চেতনা ও মহিমা অন্ধকার রাতে পূর্ণিমার আলোর মতোন ফুটে উঠেছে।

মো; আব্দুল্লাহেল বাকী বাংলাদেশ টেলিভিশনের “ক” শ্রেণীর গীতিকার হিসেবে তালিকাভুক্ত । তার লেখা গান বাংলাদেশ এবং ভারতের স্বনামধন্য শ্রদ্ধেয় শিল্পীদের গাওয়া একাধিক এ্যালবাম ও আছে ।

ব্যক্তিগত জীবনে কবি মো: আব্দুল্লাহেল বাকী স্ত্রী সালমা বেগমকে নিয়ে ২ মেয়ে,বদরুন নাহার বরাতি ও বাছিরুন নাহার বৃষ্টি এবং ১ ছেলে  আবু বকর  ছিদ্দিকি সাদিক কে নিয়ে বর্তমানে তিনি ঢাকার পূর্ব বাসাবোর কদমতলায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। কর্ম জীবনে তিনি সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী পদে গাজীপুরে চাকুরী করছেন ।

কবি মো: আব্দুল্লাহেল বাকী সমকালীন বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান শক্তিমান শব্দশ্রমিক উপাধি দিতে পারি। যেমন, একজন কৃষক কিংবা শ্রমিক অনেক কষ্টে রোদ-বৃষ্টি ঝড় উপেক্ষা করে লাঙ্গল কাঁধে নিয়ে হাতুড়ি পিটিয়ে নিরলস গায়ের রক্ত-ঘাম মাটিতে ফেলে জমিতে সোনার ফসল ফলায় কারখানায় উৎপাদনে সহায়তা করে; তেমনি কবি মো: আব্দুল্লাহেল বাকীও একজন দক্ষ কৃষকের মতো সাহিত্যের জমিতে শব্দচাষ করে এবং কাব্যের কারখানায় শব্দকে আগুনে পুড়িয়ে হাতকে লোহা করে একেবারে শব্দশ্রমিক রূপে গড়ে তুলেছেন। বাংলা সাহিত্যে তিনি এক অনন্য ও অসাধারণ শব্দচাষী এবং শব্দশ্রমিক হয়ে থাকবেন এই প্রত্যাশা ।