মি ব্যান্ড ৪ আনল শাওমি

প্রকাশিত

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক –পরিধানযোগ্য গ্যাজেট তৈরিতে বিশ্বে এখন দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চীনা ব্র্যান্ড শাওমি। তাদের এই সফলতার গুরুত্বপূর্ণ অংশ সহজলভ্য দামের ফিটনেস ট্র্যাকার- মি ব্যান্ড সিরিজ। বাজারে মি ব্যান্ড প্রথম নিয়ে আসা হয়েছিল পাঁচ বছর আগে এবং পরবর্তীতে ব্যান্ডটির প্রতিটি সিরিজে নতুনত্ব যুক্ত করে শাওমি।

তারই ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার চীনে আনুষ্ঠানিকভাবে মি ব্যান্ড ৪ উন্মোচন করেছে শাওমি। চতুর্থ প্রজন্মের এই ফিটনেস ব্যান্ডের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই প্রথম মি ব্যান্ড সিরিজে রঙিন ডিসপ্লে ব্যবহারের স্বাদ পাবেন গ্রাহকরা।

নতুন এই ব্যান্ডে রয়েছে ০.৯৫ ইঞ্চি অ্যামোলেড ডিসপ্লে, যার রেজল্যুশন ১২০ বাই ২৪০ পিক্সেল। ডিসপ্লেতে ব্যবহৃত হয়েছে স্ক্র্যাচ প্রতিরোধক ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস। টাচ সাপোর্টেড এই ডিসপ্লেতে রয়েছে ৭৭টি ভিন্ন থিম ব্যবহারের সুবিধা।

মি ব্যান্ড ৪-এ আরো রয়েছে ছয় অ্যাক্সিস অ্যাকসিলেরোমিটার সেন্সর। ফলে ফিটনেস ব্যান্ডটি সাইকেল চালানো, দৌড়ানো, হাঁটা ও সাঁতার পর্যবেক্ষণ করতে পারে। সাঁতার কাটার সময় ফ্রি স্টাইল, ব্রেস্ট স্ট্রোক, ব্যাক স্ট্রোক, বাটারফ্লাই ও মিক্সড স্টাইল আলাদা করে চিনতে পারে। হার্ট রেট সেন্সরও রয়েছে এতে। এছাড়াও মি ব্যান্ড ৪-এ বিল্ট-ইন মাইক্রোফোন থাকায় শাওমির ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টের মাধ্যমে ভয়েস কমান্ড কাজ করে। ফলে আইওটি ডিভাইসসহ অন্যান্য স্মার্ট ডিভাইসে ভয়েস কমান্ড দেয়া যাবে। কানেক্টিভিটির জন্য থাকছে ব্লুটুথ ৫.০।

চিনের বাজারে মি ব্যান্ড ৪ এর তিনটি ভার্সন উন্মোচন করেছে শাওমি। স্ট্যান্ডার্ড ভার্সনের দাম ১৬৯ ইউয়ান (প্রায় ২,১০০ টাকা)। এনএফসি ফিচার সম্পন্ন ভার্সন কিনতে ২২৯ ইউয়ান (প্রায় ২,৮০০ টাকা) খরচ হবে। এছাড়া ৩৪৯ ইউয়ানে (প্রায় ৪,৩০০ টাকা) মার্ভেল অ্যাভেঞ্জার্স লিমিটেড ভার্সন কেনা যাবে। প্রত্যেকটি ভার্সনের মি ব্যান্ড ৪ পাওয়া যাবে ভিন্ন পাঁচ রঙে। রঙগুলো হচ্ছে- কালো, বাদামী, নীল, কমলা এবং গোলাপী।

শাওমি দাবি করেছে, একবার চার্জে ২০ দিন চলবে মি ব্যান্ড ৪। এনএফসি সুবিধাসম্পন্ন ভার্সনটি ব্যাটারি ব্যাকআপ দেবে ১৫ দিন। আগামী ১৬ জুন থেকে চীনের বাজারে মি ব্যান্ড ৪ বিক্রি শুরু হবে। ভারত, বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে ব্যান্ডটি কবে নাগাদ পাওয়া যাবে তা এখনো জানা যায়নি।

তথ্যসূত্র : অ্যান্ড্রয়েড সেন্ট্রাল