সখীপুরে ধর্ষণের পর কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা,

প্রকাশিত

Sharing is caring!

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের সখীপুরে ধর্ষণের পর এক কিশোরী ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ পারভেজ আহমেদ (১৬) নামে এক কিশোরকে শনিবার রাতে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার পারভেজ ওই কিশোরীর সম্পর্কে মামাতো ভাই।সে উপজেলার ঘোনারচালা গ্রামের প্রবাসী বিল্লাল হোসেনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, কিশোরী ঘোনারচালা গ্রামে তার নানির বাড়িতে থেকে কলা বাগানের শ্রমিকের কাজ করতো।ছয় মাস আগে তার মামাতো ভাই পারভেজ বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বিষয়টি কাউকে বললে মেরে ফেলার হুমকিও দেয় পারভেজ। তিন মাস পর থেকে মেয়েটি শরীরে পরিবর্তন বুঝতে পারলেও লজ্জা ও ভয়ে কাউকে কিছু বলেনি। এক সপ্তাহ আগে শরীরে বড় রকমের পরিবর্তন দেখা দিলে মায়ের কাছে সব কিছু খুলে বলে। এ বিষয় নিয়ে এলাকায় সালিসি বৈঠক হলেও কোনো মীমাংসা না হওয়ায় মেয়ের মা একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের আলট্রাসনোগ্রাম করার।এতে অন্তঃসত্ত্বা বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে তার মা প্রতিবেদন সহকারে শনিবার সন্ধ্যায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে সখীপুর থানায় মামলা করেন। মামলার পর পুলিশ পারভেজকে গ্রেফতার করে।

কিশোরীর মা বলেন, `মেয়েটি নানির বাড়িতে থাকার কারণে ওর খোঁজ খবর বেশি একটা নিতে পারিনি। এ কারণেই আমার বিষয়টা বুঝতে দেরি হয়েছে।’

বিষয়টি নিশ্চিত করে সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বলেন, কিশোরী ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বার বিষয়ে মামলা হওয়ায় পারভেজ আহমেদ নামের এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।