ফরিদপুরে ব্যাক্তিমালিকানাধীন জমিতে সরকারী স্থাপনা না করার নির্দেশ আদালতের

প্রকাশিত

মাহবুব হোসেন পিয়াল, ফরিদপুর-
ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার দিয়ারা ২৬/১১ নং পশ্চিম চরভদ্রাসন মৌজার. এস.এ. ৬০১, দিয়ারা ১৬৭ নং খতিয়ানের ৩১৭৫ ও ৩১৭৬ নং দাগের এক একর ৩৩শতাংশ জমির মধ্যে ৪৪শতাংশ ব্যাক্তি মালিকানা সম্পত্তিতে স্থাণীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক অবৈধভাবে শেডঘর নির্মাণ কাজ না করতে নির্দেশ দিয়ে ১৪৪ধারা জারি করেছে আদালত। বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্টেট আদালতের বিচারক জমির মালিকানা দাবীকারীদের পক্ষে মো. রফিকুল ইসলাম মৃধার আবেদনের ভিত্তিতে ওই স্থানে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত সকল ধরণের স্থাপনা নির্মাণ ও গাছপালা কর্তন না করতেও নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, ওই জমির পৈত্রিক সুত্রে মালিকদের পক্ষে রফিকুল ইসলাম মৃধা দাবী করেন, ৩১৭৫ নং দাগে ২৮ শতাংশ এবং ৩১৭৬ নং দাগে এক একর ০৫ শতাংশ জমির পৈত্রিক সুত্রে তিনি (রফিকুল ইসলাম) সহ তার তিনভাই, এক বোন ও মাতাসহ চাচাতো তিনভাই ও তিন বোন এবং দুই চাচী দাবীদার। তিনি জানান, ওই জমি তার (রফিকুল ইসলাম) পুর্ব পুরুষদের নামে এসএ ও দিয়ারা (হাল) রেকর্ডভুক্ত থাকায় যুগ যুগ ধরে ভোগ দখল করছেন। কিন্তু গত ১৯ মে থেকে আকষ্মিকভাবে ৩১৭৫ নং দাগের দক্ষিণ পশ্চিম পাশে খালি জায়গায় স্থাণীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর অবৈধভাবে শেডঘর নির্মাণ কাজ শুরু করে। তিনি জানান, এ ঘটনায় দাবীদারদের পক্ষে তিনি (রফিকুল ইসলাম মৃধা) বাদী হয়ে গত ২৩ মে যুগ্ম জেলা জজ আদালত, দ্বিতীয় আদালতে চরভদ্রাসন উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি), উপজেলা প্রকৌশলী ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদের বিবাদী করে মামলা দায়ের করেছেন।

 

 

আরেক দাবীদার মো. শাহজাহান মৃধা দাবী করেন, আমাদের অনুপস্থিতিতে এবং কোন ধরনের নোটিশ না দিয়ে বা কোনভাবে অবগত না করে গোপনে আমাদের ব্যক্তি মালিকানাধীন জমিতে সরকারীভাবে প্রকল্প দিয়ে তড়িঘড়িভাবে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে শেডঘর নির্মান কাজ করা হচ্ছে।

ওই জমির পৈত্রিকসুত্রে দাবীদারেরা তাদের ব্যাক্তি মালিকানাধীন জমিতে নির্মাণকাজ বন্ধের দাবী জানানোর পরও সংশ্লিষ্টরা কাজ বন্ধ না করায় আদালতের স্মরণাপন্ন হলে আদালত রোববার ওই জমিনের উপরে ১৪৪ধারা জারি করে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ০৪ আগষ্ট উভয় পক্ষকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।