টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে দুই ভাইয়ের দুই বউ উধাও

প্রকাশিত

রাজবাড়ী প্রতিনিধি-

একই রাতে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কারসহ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের বিল জালিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের দুই পুত্রবধূ উধাও হয়েছেন। এ সময় তারা তাদের শিশু সন্তান ইয়াছিনকে সঙ্গে নিয়ে গেছেন।

গত ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার রাতে নগদ ২ লাখ ২০ হাজার টাকা ও প্রায় ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে তারা পালিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত তাদের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় ওই দুই নারীর শ্বশুর আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাস বাদী হয়ে পাংশা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগকারী আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাস জানান, গত ২৫ জুলাই রাতে খাওয়া দাওয়ার পর তার ২ ছেলে তাদের স্ত্রীদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে ছেলে নাজমুল হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে দেখেন তার পাশে স্ত্রী স্বপ্না খাতুন নেই। পরে তিনি বড় ভাই কামরুল বিশ্বাসের ঘরে গিয়ে দেখেন দরজা খোলা এবং তার ভাবি জুথি খাতুন ও ভাতিজা ইয়াছিনও (১৯ মাস) নেই।

ওই রাতেই বিভিন্ন স্থানে খোঁজ খবর নিলেও তাদের কোনো সন্ধান মেলেনি। কী কারণে তারা বাড়ি থেকে চলে গেছেন তারও কোনো কারণ বলতে পারেননি।

তিনি আরও জানান, কয়েকদিন আগে ব্র্যাক এনজিও থেকে নেয়া ৮০ হাজার টাকা, ফার্মের মুরগি বিক্রির ২ লাখ ২০ হাজার টাকা এবং প্রায় ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে তারা দুজন উধাও হয়েছেন।

আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের ছেলে নাজমুল বিশ্বাস জানান, উধাও হওয়ার পর মাঝে মধ্যে তার স্ত্রীর মোবাইল ফোন খোলা পাওয়া যাচ্ছে। তবে দীর্ঘ সময় ফোন ব্যাস্ত থাকছে। পরক্ষণেই আবার বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ঘটনার পর থেকে তার স্ত্রীর পরিবার থেকে নানাভাবে তাদের হুমকি দেয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে যেকোনো মূল্যে তাদের মেয়েকে খুঁজে দিতে।

এ বিষয়ে পাংশা থানার ওসি আহসান উল্লাহ জানান, দুই ভাইয়ের স্ত্রী উধাও হওয়ার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত তাদের কোনো সন্ধান পাননি।