সেনবাগে ফুটবল খেলা নিয়ে ছাতারপাইয়ায় দুই গ্রামবাসির মধ্যে সংঘর্ষ আলাদা দ্ইু মামলায় আসামী- ২৩৭, গ্রেফতার-৪

প্রকাশিত

সেনবাগ(নোয়াখালী)প্রতিনিধি
নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে দুই গস্খামবাসির মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় আলাদা দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে আসামী করা হয়েছে ২৩৭ জনকে। এর মধ্যে সেনবাগ থানার এস.আই তানভির বাদী হয়ে ২৫ জনকে নাম উল্লেখ্য ও অজ্ঞাত ৭০/৭৫ জন এবং স্থানীয় রুবেল বাদী হয়ে ৬২ জনের নাম উল্লেখ্য ও অজ্ঞাত ৭০/৭৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দুটি দায়ের করেন।
বুধবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ছাতারপাইয়া সোনাইমুড়ী সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এসময় স্হানীয় ব্র্যাক অফিস হতে শারমিন মেডিকেল পর্যন্ত উভয় গ্রুপের তান্ডবে রণক্ষেত্র সৃষ্টি হয়।এতে ছাতারপাইয়া বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ছাতারপাইয়া সোনাইমুড়ী সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
হামলাকারীরা ইউপি সদস্য গোলাপের মটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং আশপাশের ১০টি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায়। এতে ৩০ জন গুরুত্বর আহত হয়েছে। দুপুরে খবর পেয়ে সেনবাগ থানা পুলিশ ও সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্হলে পৌছে পরিস্হিতি নিযন্ত্রণে আনতে ৬ রাউন্ড গুলিবর্ষন ও ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং ৪ জনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ইউনিয়ন বিএনপির সেক্রেটারি সামছুল হক (৪৮) মন্নান(৫৫) মুন্না(৩০) ও সাখাওয়াত (২৬)। উভয় গ্রুপের গুরুত্বর আহতরা হলেন, রাসেল(৩৫) রাজু(২২) বসর (৩৫) মারুপ(২৩) রোমান (১১) ছালা উদ্দিন (৩০) নুর মোহাম্মদ (৪০) রিয়াজ (২৫) মহরম (৩০) বশির (২৫), ছালা উদ্দিন (১৮) ও মাছুম (১৯)। আহতদেরকে স্হানীয় লোকজন উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী, বজরা, ও নোয়াখালীতে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা লাভলু ড্রাইভার ও ১নং ওয়াডের্র মাওলার উদ্যোগে জেলা আওয়ালীগ নেতা আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিকের নামে প্রতিষ্ঠিত আতাউরি রহমান ভূঁইয়া মানিক স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। খেলা শেষ হবার ৪ মিনিট আগ পর্যন্ত লাভলুর দল ২-০ গোলে এগিয়ে থাকে। এরপর গোল দেয়াকে কেন্দ্র করে বাকবিত-ার এক পর্যায়ে খেলাটি পন্ড হয়ে যায। এর জের ধরে রাতে দফায় দফায় হামলার ঘটনা ঘটে।
পরে সকালে স্থাানীয়রা দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধটি বিচার শালিসের মাধ্যমে মিমাংসা করার কথা থাকলেও বেলা সাড়ে ১১ টায় ৪ নং ওয়ার্ডের রিক্সাচালক মারুপ (২৩) কে ছাতারপাইয়া বাজাওে ১ নং ওয়ার্ডের লোকজন মারধর করার ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রুপ নেয়।এসময় পরিস্থি নিয়ন্ত্রনে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে উভয় গ্রুপ পুলিশের ওপর চড়াও হয়।
সেনবাগ থানার ওসি ( ভারপ্রাপ্ত) আব্দুল আলী পাটোয়ারি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের নোয়াখালীর বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

 

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম
তারিখ ঃ ২৩/০৮/১৯ইং সেনবাগ প্রতিনিধি
নোয়াখালী।
০১৮১২৮৭৪০৭৩
০১৭১২৮৭৪০৭৩