দক্ষ কর্মী হতে হলে যে গুন থাকা দরকার

প্রকাশিত

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ প্রতিটি মানুষ শূন্য হাতে জন্মগ্রহণ করেছে। এই পৃথিবীতে একটি মানুষও নেই, যিনি অতিরিক্ত গুণ নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছেন। মানুষ তার জন্মের পরই প্রতিটি গুণ অর্জন করে। তাই আমাদের উচিত, নিজেকে একজন ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় গুণাবলি অর্জন করা।
অসীম আত্মবিশ্বাস : জন্ম থেকেই মানুষ ছুটে চলছে । আবিষ্কার করে চলেছে হাজারো নতুন নতুন জিনিস। এসব আবিষ্কার জীবনকে করে তুলছে আরো সহজ। প্রেরণা যোগাচ্ছে আরো নতুন নতুন আবিষ্কারের। পৃথিবীতে মানুষই একমাত্র প্রাণী, যার আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে অন্য কোনো প্রাণীর তুলনা চলে না। একটা সময় নির্ভীক শিকারি বাঘও শিকারের হাল ছেড়ে দেয়। কিন্তু মানুষ তার কাঙিক্ষত ফলাফল অর্জনের জন্য নিরন্তর ছুটে চলে এবং একটা সময় বিজয়ের নিশান ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হয়। আর এসব কিছুই সম্ভব হয় মানুষের নিজের প্রতি অগাধ বিশ্বাসের কারণে। আত্মবিশ্বাসের ওপর ভর করেই মানুষ বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা পায়, অনুপ্রেরণা পায় নতুন কিছু জয়ের,নতুন কিছু আবিষ্কারের। এজন্য প্রতিটি মানুষের উচিত আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠা।

নিজের প্রতি স্বচ্ছ ধারণা : আত্মবিশ্বাসী মানুষের সাফল্যের খাতা খুবই ভারি হয়। কারণ তারা নিজের সক্ষমতা সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা পোষণ করেন। তারা জানেন, তারা কী করতে পারেন, আর কোনটা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। নিজের প্রতি সচেতন মানুষ সবসময় নিজস্ব গণ্ডির মধ্যে থেকে মানুষকে প্রতিশ্রুতি দেন, সেসঙ্গে প্রতিটি প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেন।

সমালোচনা স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করা : মানুষ জন্মগতভাবেই কিছুটা আত্মকেন্দ্রিক হয়। নিজের প্রতি অগাধ বিশ্বাস তার স্বভাবজাত চরিত্র। এজন্য মানুষ তার নিজের সমালোচনা স্বাভাবিকভাবে নিতে পারে না। কেউ একজন তার সমালোচনা করলেই আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে। ফলে সমালোচনার শিকার মানুষটি নিজের ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলেন, সেসঙ্গে আশপাশের মানুষও তার প্রতি বিরূপ মনোভাব পোষণ করেন। কিন্তু পৃথিবীতে অসংখ্য মানুষ আছেন, যারা সমালোচনা স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করেন এবং সেসব সমালোচিত দিকগুলো বর্জন করে হয়ে ওঠেন একজন পরিপূর্ণ মানুষ। সহকর্মীদের কাছেও তারা অনুকরণীয় ও আদর্শ মানুষে পরিণত হন।

আবেগ নিয়ন্ত্রণ করা : আপনি যদি কোন সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে চান, তাহলে আপনার জন্য প্রথম শর্ত হচ্ছে, আবেগ নিয়ন্ত্রণ করুন এবং যুক্তিকে প্রাধান্য দিন। কারণ আবেগ প্রতিটি সিদ্ধান্তকে প্রভাবিত করে। আবেগ দ্বারা কখনই সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়া সম্ভব নয়।
আপনি একজন মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগে দায়িত্ব প্রাপ্ত। আপনাকে দায়িত্ব দেয়া হল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মূল্যায়ন করতে। এখন যদি আবেগ দ্বারা মূল্যায়ন করেন, তাহলে সেসব কর্মকর্তা ও কর্মচারীরাই ভালো হিসেবে মূল্যায়িত হবেন, যারা আপনার সাথে ভালো আচরণ করতেন। কিন্তু যুক্তি দিয়ে বিচার করলে তারাই ভালো হিসেবে মূল্যায়ন পাবেন, যারা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের স্বার্থে নিরলস কাজ করে গেছেন। আর তাই যারা আবেগ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে থাকেন, তারা প্রতিটি সহকর্মী ও প্রতিষ্ঠানের নিকট ভালো কর্মী হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করতে সক্ষম হন।