মঠবাড়িয়ায় প্রাইভেট শিক্ষকের বেত্রঘাতে স্কুল ছাত্রী আহত

প্রকাশিত

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মালিহা আক্তার (১২) নামে পঞ্চম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাত করে আহত করেছে প্রাইভেট শিক্ষক। এ ঘটনায় ভূক্তভোগি শিক্ষার্থীর বাবা কলেজ শিক্ষক মাহাবুবুর রহমান শনিবার বিকেলে এর প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, পৌর শহরের নিউমার্কেট মহল্লায় কলেজ শিক্ষক মাহাবুবুর রহমানের বাস ভবনে ৫৬ নং মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শহিদুল ইসলামের কাছে প্রাইভেট পড়তে দেন। গত শুক্রবার সকালে ওই প্রাইভেট শিক্ষক প্রাইভেট পড়ানোর সময় মেয়েকে ৫টি অংক কষতে দেন। ৫টির অংকের মধ্যে একটি অংক ভুল হওয়ায় শিক্ষক শহিদুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে এলোপাথারী বেত্রাঘাত ও গালমন্দ করে। একই সাথে বেত্রঘাতের কথা কাউকে না বলার জন্য শাসিয়ে দেন ওই শিক্ষক।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক শহীদুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম এ অভিযোগর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অভিযোগ পেয়ে বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি এম সরফরাজ বলেন, শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাতের অভিযোগ পেয়েছি। জরুরী সভার কাজে পিরোজপুর জেলা সদরে থাকায় সোমবার এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।