সারিয়াকান্দিতে ১৪মাসের শিশুকে আছার দিয়ে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত

সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে ফাতেমা খাতুন নামে ১৪মাসের এক মেয়ে শিশুকে আছার দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। এ ঘটনার পর থেকে ঘাতক সাজু পলাতক রয়েছেন। নিহত ফাতেমা সারিয়াকান্দি থানার হাটশেরপুর গ্রামের সাইদুল আকন্দের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হাটশেরপুর গ্রামে পাশাপাশি বসবাস করেন সাইদুল আকন্দ ও ঘাতক সাজুর পরিবার। গত ৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে গ্রামের রাস্তায় খেলা করছিল সাজুর ছেলে টিটু (৫) ও সাইদুলের মেয়ে ফাতেমা। এর এক পর্যায়ে টিটুর কান্না শুনে তার বাবা সাজু বাড়ি থেকে বের হন এবং ওই রাস্তায় গিয়ে ১৪ মাস বয়সী ফাতেমাকে আছাড় দেন। পরে ফাতেমাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা ফাতেমাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু টাকার অভাবে ঢাকায় নিয়ে যেতে না পেরে সোমবার রাতে ফাতেমাকে সারিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ফাতেমা মারা যায়।

 

 

ফাতেমার বাবা সাইদুল আকন্দ জানান, এ ঘটনায় ওই রাতেই সারিয়াকান্দি থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়।

এব্যাপারে সারিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আল আমিন জানান, বিষয়টি সম্পর্কে তদন্ত স্বাপেক্ষে যতটুকু জানতে পেরেছি এটা আসলে হত্যা কান্ড নয়। ভ্যানের সাথে ধাক্কা লেগে মেয়েটির মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। বাদি পক্ষ যে অভিযোগ করেছিল তার ভিত্তিতে তদন্ত করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে ভ্যানের সাথে মেয়েটির মৃত্যু হবার বিষয়টি স্বীকার করেছে তার পরিবার।