গাজীপুরের ট্রাফিক পুলিশ জনগনের সেবার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে – টিআই তরিকুল ইসলাম

প্রকাশিত

শেখ রাজীব হাসান,গাজীপুর: ট্রাফিক পুলিশ বাংলাদেশ। পুলিশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি শাখা। ট্রাফিক পুলিশের কোনো বৈরি আবহাওয়া নেই। ‘রোদ, বৃষ্টি, ঝড় যাই হোক না কেন ট্রাফিক পুলিশ মাঠে (রাস্তায়) থাকে। কোনো মুহূর্তেই এরা সেবা থেকে বাইরে থাকে না।’ ভারী বর্ষণেও ছাতা বা রেইন কোর্ট নিয়ে রাস্তায় কাজ করতে হয়। ট্রাফিক পুলিশের অন্যতম প্রধান কাজ হলো ‘ট্রাফিক আইনকানুন’ মেনে চলতে যানবাহনগুলোর চালকদের সাহায্য করা। ‘ট্রাফিক পুলিশ সাধারণ মানুষের সেবার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এবিষয়ে টঙ্গী ট্রাফিক দক্ষিণ জোনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা টিআই তরিকুল ইসলাম বলেন, পূর্বে গাজীপুর মেটোপলিটন ট্রাফিক বিভাগে টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত রাস্তায় জ্যাম এবং রাস্তার দুই পাশে গাড়ি দারিয়ে থাকতো। টঙ্গী দক্ষিণ জোন ট্রাফিক বিভাগের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার থোয়াই অংপ্রু মারমা স্যারের নির্দেশনায় থানা গেট, তুরাগ স্ট্যান্ড, মিলগেট স্ট্যান্ড, কামারপাড়া স্ট্যান্ড, থানারোড় তালতলা থেকে হকের মোড় রাস্তার দুপাশে দাড়িয়ে থাকা কাভার্ডভ্যান ও ট্রাক সরিয়ে ফেলা হয়েছে। বিশেষ করে টঙ্গী কালিগঞ্জ মহাসড়কে দুপাশে দাড়িয়ে থাকা সিএনজি আটো, লেগুনা স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করা হয়েছে। টঙ্গী কালিগঞ্জ মহাসড়কে এখন কোন জ্যাম নেই। ফিটন্সে বিহীন গাড়ি, ইজি বাইক,আটো রিক্সা মহাসড়কে চলাচলের নিষেধ করা হয়েছে। বিশেষ করে ফিটন্সে বিহীন গাড়ি ও অটো রিক্সা যাতে না চলে সেজন্য আমরা ট্রাফিক বিভাগের পক্ষ থেকে মাইকিং করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফিটন্সেবিহীন যেসব গাড়ি মহাসড়কে চলাচল করছে আমাদের দায়িত্বরত সার্জেন্ট মো. রাসেদুজ্জামান, মো. এরশাদ, মো. রোমান, মো. পারভেজ, সেসব গাড়িকে আটক করে কাগজপত্র যাচাই বাচাই করে মামলা দিচ্ছে এবং কাগজপত্র ডেট না থাকায় ডাপিং করা হচ্ছে বলে এখন মহাসড়কে কোন ফিটন্সে বিহীন গাড়ি চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে না। ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও কালিগঞ্জ মহাসড়কে কোন জ্যাম নেই। বৃষ্টি হলে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে যাত্রী চাপ থাকায় কিছু জ্যাম দেখা যাওয়ার কারণ হচ্ছে গাজীপুর মহাসড়কে সংস্কারের কাজ চলছে । সংস্কার কাজ শেষ হলে দ্রুত মহাসড়কের জ্যাম নিরাশন হবে বলে আমরা আশাবাদি।