দোহারে খামার বাড়ির ৪টি ঘর ভেঙ্গে দিল দুর্বৃত্তরা- থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত

দোহার নবাবগঞ্জ(ঢাকা) প্রতিনিধি- ঢাকার দোহার উপজেলার কুসুমহাটী ইউনিয়নের চরকুশাই গ্রামে, শুক্রবার ভোরে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.আজাহারের ত্রুয়কৃত জমিতে নির্মিত্ত, খামার বাড়ির ৪টি টিনশেড ঘর দুর্বৃত্তরা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে এবং বাড়ির কেয়ারটেকার বাবুলকে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবং খামাওে থাকা দুটি গরু নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। এ বিষয়ে দোহার থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার ভোরে স্থানীয় শেখ কালুর পুত্র মো. মিলনের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ সদস্যের দুর্বৃত্তের দল হঠাৎ আজাহারের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে, ঘরের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। পরে হাতড়ি, কুড়াল ও চাপাতির সাহায্যে ৪ টি ঘর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। এসময় ঘর ভাঙ্গার শব্দ শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনা উপস্থিত হলে তারা পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে মিলনকে জিঙ্গাসা করা হলে তিনি বলেন, এঘটনার সাথে আমি জড়িত নই।
চরকুশাই গ্রামের বাসিন্দা নিজাম বলেন, আজাহারের খামার বাড়িতে ভোরে হঠাৎ তারা উপস্থিত হয়ে ঘর দরজা ভাঙ্গা শুরু করলে শব্দ শুনে আমি এগিয়ে আসি। এসময় আমরা নিষেধ করলে তারা বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিতে থাকে ও গালমন্দ করে।
এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ইউপি সদস্য মো.আজাহার বলেন, মিলন ও তার সহযোগীরা, আমার খামার বাড়ির ৪টি টিনশেড ঘর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে। এছাড়া ২ টি উন্নত জাতের গাভী নিয়ে গেছে। আমার বাড়ির কেয়ারটেকার বাবুলকে পিটিয়ে আহত করেছে। সে এখন দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
দোহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছে। অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।