অমর একুশে গ্রন্থমেলায় দর্শনার্থী বাড়ছে বিক্রিও ভালো

প্রকাশিত

স্টাফ রিপোর্টার: একে তো ছুটির দিন, তার উপর শিশুপ্রহর-এ দুইয়ে মিলে গতকাল শনিবার অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ফুটে ওঠে ভিন্ন আমেজ। সপ্তাহের অন্যান্য দিনে দেশের কর্মজীবী মানুষ বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকার পর ছুটির দিনে সময় কাটানোর জন্য বইমেলাকে সবাই যেন আপন করে নিয়েছেন। অন্যান্য দিনে মেলা সন্ধ্যার দিকে জমজমাট হলেও এদিন মেলা সকাল থেকেই জমে ওঠে। শিশুপ্রহর থাকায় শিশুদের কলকাকলিতে সকাল থেকে মেলা চত্বর দখলে রেখেছিল এসব নবীনরা। মেলার সিসিমপুর চত্বরে শিশুদের নানান রকম বায়না মেটাতে ব্যস্ত অভিভাবকিরা। শিশু মঞ্চের দৃশ্য দেখতে আপনজনের কাঁধে উঠতে দেখা গেছে অনেককে। এদিকে মেলায় গতদিনের তুলনায় দর্শনার্থী, পাঠক ও লেখকদের আনাগোনা বাড়ছে এবং সেই সাথে বই বিক্রির পরিমাণও ভালো বলে জানালেন প্রকাশক ও বিক্রয়কর্মীরা।
অক্ষর প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী আসলাম হোসেন বলেন, ছুটির দিন ও শিশু প্রহর থাকায় মেলায় সকাল থেকেই লোকসমাগম বেশ ভালো। নানা বয়সী পাঠকের আবদার মেটাতে মূলত: সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। তাছাড়া বরাবরের মতো বিক্রির পরিমাণ গতদিনের তুলনায় বেশ ভালোই হচ্ছে। এ স্টল থেকে রুদ্র মুহাম্মদ শহিদুল্লাহর লেখা ‘প্রেমের কবিতা’ সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তিনি। চারুলিপি প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী স¤্রাট বলেন, মেলা সকাল থেকেই বেশ জমে উঠেছে। পাঠক, দর্শনার্থীদের চাহিদা মেটাতে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছি। তারা আসছেন, বই দেখছেন, দাম জিজ্ঞেস করছেন, অনেকে বই কিনে চলে যাচ্ছেন আবার অনেকে পরে কিনবেন বলে ক্যাটালগ নিয়ে যাচ্ছেন-এসব কাজেই সারাদিন নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।
গতকাল শনিবার ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৭তম দিন। এদিন সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মেলায় শিশুপ্রহর ছিল। এদিন সকাল থেকেই মেলা বেশ জমজমাট ছিল। মেলায় বই বিক্রির পরিমাণও বেশ ভালো বলে জানা গেছে। বাংলা একাডেমির দেয়া তথ্যমতে, এদিন মেলায় নতুন বই এসেছে ২২১টি এবং গ্রন্থমেলায় গত শুক্রবারে ১৭টি প্রবেশপথ দিয়ে প্রায় সাড়ে তিন লাখ লোক প্রবেশ করেছিল বলে জানিয়েছেন কতৃপক্ষ।
মূল আয়োজন: ১৭তম দিনে মেলা চলে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। মেলায় সকাল ১১টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত শিশুপ্রহর ঘোষণা ছিল। বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় এ কে এম আহসান ॥ খান শামসুর রহমান ॥ মুজিবুল হক শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। আলোচনা করেন এম মোকাম্মেল হক এবং অধ্যাপক আবদুল মমিন চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল সাইমন জাকারিয়ার পরিচালানায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘ভাবনগর ফাউ-েশন’, অধ্যাপক লিয়াকত আলীর পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্র’ এবং সাজেদুল ইসলাম ফাতেমীর পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘নকশীকাঁথা’-এর পরিবেশনা।
আজকের আয়োজন: আজ রোববার অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৮তম দিন। মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে এ এফ সালাহ্উদ্দীন আহ্মদ ॥ মুজাফ্ফর আহমদ চৌধুরী ॥ এ কে নাজমুল করিম শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন মুনতাসীর মামুন, মীজানূর রহমান শেলী এবং সোনিয়া নিশাত আমিন। সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান রয়েছে।