অসহায় মানুষগুলোই আমার ভবিষ্যৎ : জাহিদ আহসান রাসেল

প্রকাশিত

শেখ রাজীব হাসান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশে কঠোর কর্মসূচী হাতে নেওয়া হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে দিনমজুর ও অসহায় শ্রমজীবী মানুষ গুলো। এসকল অসহায়, দরিদ্র নিম্ন আয়ের মানুষের কথা চিন্তা করে রাতের আঁধারে প্রত্যেকের বাড়িতে গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন ভাওয়াল বীর শহীদ আহসান উল্লাহ্‌ মাষ্টার এর সুযোগ্য সন্তান গাজীপুরের মাটি ও মানুষের আস্থার প্রতীক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

জনবান্ধব এ নেতা দরিদ্র মানুষের তালিকা ধরে নিজ এলাকার মানুষের মাঝে এই ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেন। জনসমাগম এড়াতে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে প্রতিমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তার কর্মীরা গভীর রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে অসহায় ও গরীব দিনমজুর পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগী বিতরণ করেন। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে প্রতিমন্ত্রীর নিজ এলাকা গাজীপুরের জয়দেবপুর, টঙ্গীর কেরানিরটেক বস্তি, কো-অপারেটিভ ব্যাংক মাঠ বস্তি, নোঁয়াগাও রেল কলোনি ও আশপাশের এলাকায় খাদ্য বিতরণ কার্যক্রম করে আসছে।
যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে তার চাচা গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে এই ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেন। ত্রাণ সামগ্রীতে ছিল চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, লবণ, ভোজ্যতেল ও সুরক্ষা সামগ্রী।

রাতের আধাঁরে অসহায় মানুষের ঘরে খাদ্য পৌছে দিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর চাচা মতিhttps://www.dailygazipuronline.com/%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%81%e0%a6%b0%e0%a7%87-%e0%a6%85%e0%a6%b8%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%81%e0%a6%b7/

Posted by Nasir Uddin Bulbul on Friday, April 3, 2020

এসময় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব রাসেল জানান, করোনা আইরাস মোকাবিলায় কয়েক দিন ধরে যানবাহন চলাচলসহ বন্ধ হয়ে গেছে অনেক কল কারখানা-দোকান ও বিপনী বিতান। ঘর থেকে বের হচ্ছে না কেউ। অসহায় হয়ে পড়েছে অনেক দিনমজুর, দরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষ। আমার এমপি মন্ত্রী হওয়ার জন্য এই অসহায় মানুষগুলোর ও যতেষ্ঠ অবদান রয়েছে তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমার নিজ নির্বাচনী এলাকার সকলের জন্য সাধ্যমতো নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য পৌঁছে দিচ্ছি। প্রাথমিকভাবে প্রথম ধাপে ৫০ হাজার পরিবারের জন্য খাবার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমাদের দেওয়া এই ত্রাণ শুধু গাজীপুরের ভোটারদের জন্য নয়। কে ভোটার আর কে ভোটার না এটা দেখে আমি ত্রাণ দিচ্ছি না। আমার ত্রাণ সকল অসহায় মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। করোনা মোকাবিলা করতে গিয়ে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, সকলের কাছে একটাই অনুরোধ আপনারা দেশ ও মানুষের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সরকারের দেওয়া নির্দেশনা মেনে চলুন। অকারণে কেউ বাড়ির বাইরে যাবেন না। সবসময় নিজে এবং পরিবারের সকলকে পরিষ্কার পরিছন্ন রাখবেন।