অ্যাজমার যে ৭ উপসর্গ প্রত্যেকের জানা উচিত

প্রকাশিত

নিউজ ডেস্ক : অ্যাজমা বা হাঁপানি হলো শ্বাসনালীর প্রদাহজনিত দীর্ঘমেয়াদি রোগ। এটি এমন এক অবস্থা যখন প্রদাহযুক্ত এয়ারওয়ে (ফুসফুসে বায়ু প্রবেশের পথ) শ্বাসকার্য কঠিন করে তোলে। অ্যাজমার প্রধান উপসর্গ হচ্ছে, শ্বাসকার্যের সময় হুইসেল দেওয়ার মতো বা সাঁসাঁ বা চিঁচিঁ শব্দ হওয়া। এ প্রতিবেদনে অ্যাজমার আরো দুর্বোধ্য উপসর্গ সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

* আপনার বয়স চল্লিশের ঘরে আছে
ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ফ্লোরিডা কলেজ অব মেডিসিনের ডিভিশন অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইমিউনোলজির পরিচালক এফ. লকি বলেন, ‘বয়স্কদের মধ্যে অ্যাজমা আরম্ভ হওয়ার শ্রেষ্ঠ বছর হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০।’ যাদের মধ্যে অ্যাজমা বিকশিত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে তাদের অধিকাংশেরই অ্যালার্জি আছে অথবা শিশুদের মতো ডিসঅর্ডার আছে- যদিও তাদের শারীরিক বৃদ্ধি বেশ ভালো। অনেকক্ষেত্রে এটি কোনো ইনফেকশনের পর হতে পারে। ডা. লকি বলেন, ‘আপনার ঠান্ডা লাগলে হঠাৎ অ্যাজমাও হতে পারে।’

* আপনার কাশি দূর হচ্ছে না
আমেরিকান কলেজ অ্যালার্জি, অ্যাজমা অ্যান্ড ইমিউনোলজির (এসিএএআই) মতে, ‘এটি ভাবা সহজ যে কাশির মানে হচ্ছে আপনার ঠান্ডা লেগেছে বা ব্রংকাইটিস হয়েছে, কিন্তু কাশির ফিরে আসা অব্যাহত থাকলে এটি অ্যাজমার লক্ষণ হতে পারে। যখন আপনি হাসেন বা শয়ন করেন, আপনার কাশি আরো খারাপ হয়। এটি বুক থেকে আসে, গলা থেকে নয়।’ কফ-ভ্যারিয়েন্ট অ্যাজমা নামে পরিচিত একপ্রকার অ্যাজমার একমাত্র উপসর্গ হচ্ছে দীর্ঘস্থায়ী কাশি। এসিএএআই অনুসারে, এ ধরনের অ্যাজমায় ভোগা লোকেরা ওভার-দ্য-কাউন্টার কাশির ওষুধে (যা কিনতে ডাক্তারি প্রেসক্রিপশন লাগে না) উপশম লাভ করে না, সফল চিকিৎসার জন্য প্রেসক্রিপশন অ্যাজমা ওষুধ প্রয়োজন হবে- প্রায়ক্ষেত্রে ইনহেলার হিসেবে।

*  আপনি প্রচুর দীর্ঘশ্বাস, হাই তুলে শ্বাস অথবা গভীর শ্বাস গ্রহণ করেন
দীর্ঘশ্বাস, হাই তুলে শ্বাস, গভীর শ্বাসের মানে এই নয় যে আপনি অবশ্যই অ্যাজমায় ভুগছেন। তবে ভুগতেও পারেন-প্রকৃতপক্ষে, এসব অ্যাজমার উপসর্গ হতে পারে। এই তিন উপায়ে শ্বাসকার্য শরীরে অধিক অক্সিজেন সরবরাহ এবং শরীর থেকে অধিক কার্বন-ডাই-অক্সাইড বের হওয়ার সঙ্গে জড়িত- এটি হচ্ছে সংকুচিত এয়ারওয়ের দ্বারা সৃষ্ট ভারসাম্যহীনতা প্রতিকার করতে অচেতন প্রচেষ্টা।

* আপনি প্রায়সময় ক্লান্ত থাকেন
অ্যাজমার ক্ষেত্রে শ্বাসকার্যের শব্দ ও কাশি রাতে আরো বেশি তীব্র হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশনের মতে, ‘এসব রাত্রিকালীন উপদ্রবের জন্য সার্কাডিয়ান রিদম ফ্যাক্টর দায়ী নাকি বিভিন্ন পদ্ধতিতে ঘুম সম্পাদন দায়ী তা এখনো স্পষ্ট নয়।’ বিঘ্নিত ঘুম হতে পারে প্রথম উপসর্গ এবং এটি একটি মারাত্মক সমস্যা। রাতে ভালো ঘুম না হলে শুধুমাত্র শারীরিক শক্তি নয়, মনের প্রখরতাও হ্রাস পাবে। দীর্ঘস্থায়ী ঘুমহীনতার সঙ্গে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের বর্ধিত ঝুঁকির সম্পর্ক পাওয়া গেছে এবং কিছু বিশেষজ্ঞ ধারণা করছেন যে এটি অ্যাজমাকে আরো তীব্র করতে পারে। তবে অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণ করা গেলে ঘুমের সমস্যা চলে যেতে পারে।

* আপনার বুকে টাইট অনুভূত হয়
১০ কিলোমিটার দৌঁড়ের পর অ্যানি-ম্যারি ব্রুকসের শ্বাস নিতে সমস্যা হয় এবং তিনি তার বুকে টাইট বা টানটান অনুভব করেন। তার স্বামী উদ্বিগ্ন হন যে এ দৌঁড়ে তার হার্ট অ্যাটাক হতে পারে, তাই তাকে ইমার্জেন্সি রুমে নিয়ে যান। সেখানে ৪৮ বছর বয়স্ক ব্রুকস অবহিত হন যে তিনি কার্ডিয়াক সমস্যায় ভুগছিলেন না, কিন্তু এমন কিছুতে ভুগছিলেন যা ৩৬ বছর পূর্বে ছেড়ে এসেছিলেন এবং তা হচ্ছে অ্যাজমা। ব্রুকস বলেন, ‘আমার কখনো মনে হয়নি যে আমার অ্যাজমা অ্যাটাক হতে পারে।’ যখন আপনার এয়ারওয়ে বা ফুসফুসে বায়ু প্রবেশপথের চারদিকের পেশী সংকুচিত হয়, তখন আপনার বুক টাইট বা আঁটসাঁট বা টানটান হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হার্ট, লাং অ্যান্ড ব্লাড ইনস্টিটিউট অনুসারে, ‘এর ফলে কোনোকিছু আপনার বুকের ওপর চাপ দিচ্ছে বা বসে আছে এমন অনুভূত হয়।’ পোস্টগ্র্যাজুয়েট মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণা থেকে জানা যায়, ১০০ জন অ্যাজমা রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, তাদের মধ্যে ৭৮ শতাংশের বুকে ব্যথা ছিল যা কাশি, গভীর শ্বাস ও চলাফেলার দ্বারা অধিকতর খারাপ হয় এবং সিট আপ ব্যায়ামের মাধ্যমে তা অনেকটা রিকভার করা গেছে। লোকজন প্রায়ই এ টাইট অবস্থাকে হার্ট অ্যাটাক ভেবে ভুল করে। আপনার চিকিৎসক প্রকৃত অবস্থা নির্ণয় এবং উপযুক্ত চিকিৎসা প্রদান করতে পারেন।

* আপনি দ্রুত অগভীর শ্বাস নেন
কিছু লোকের ক্ষেত্রে দ্রুত অগভীর শ্বাসকার্য অ্যাজমার একটি উপসর্গ হতে পারে। ইউনিভার্সিটি অব ম্যারিল্যান্ড মেডিক্যাল সেন্টারের মতে, ‘গলার নিচ এবং পাঁজরের হাড়সমূহের মধ্যবর্তী স্থানে মাংসপেশীর আচরণ স্বাভাবিকের তুলনায় অধিক খারাপ হতে পারে।’ বিশ্রামে বয়স্ক মানুষের স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাসের হার প্রতি মিনিটে ১২ থেকে ২০ বার। কিন্তু হাইপারভেন্টিলেশনের ক্ষেত্রে শ্বাসপ্রশ্বাস প্রতিমিনিটে ৩০ বার বা এর চেয়ে দ্রুত হয়।

* আপনি বিড়ালের প্রতি অ্যালার্জিক
যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের ২০০৭ সালের একটি গবেষণা অনুসারে, ৫০ শতাংশ অ্যাজমা রোগের ঘটনা অ্যালার্জির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত এবং বিড়ালের প্রতি অ্যালার্জিক হওয়াটা একটি শক্তিশালী ঝুঁকিপূর্ণ কারণ। প্রায় ৩০ শতাংশ অ্যাজমা রোগের ঘটনার ক্ষেত্রে ক্যাট অ্যালার্জেন জড়িত। ক্যাট অ্যালার্জির সঙ্গে অ্যাজমার তীব্রতা বা বিকাশের প্রকৃত প্রভাবের সম্পর্ক জানতে গবেষকরা এখনো গবেষণা করে যাচ্ছেন।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট