আগামী নির্বাচনে জনতার রায় দল হাসিমুখে মেনে নেবে : নাসিম

প্রকাশিত

আগামী বছরের বিজয়ের মাসেই জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠি হবে বলে জনিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। এই নির্বাচনে জনগণ যে রায় দেবে, সেটি হাসিমুখে মেনে নেবে আওয়ামী লীগ।

আর এই নির্বাচনটি হবে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত সংবিধান মোতাবেক। তাতে বেগম জিয়া যতই যা কিছু বলুক না কেন, তাতে কিছু যায় আসেনা।

আজ সোমবার বেলা ১১ টায় কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে মন্ত্রী একথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত সাংবাদিক কল্যাণ তহবিলের চেক হস্তান্তরের এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়ন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, রংপুরের নির্বাচনই প্রমাণ করে দিয়েছে- আওয়ামী লীগের সময়ে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়। অথচ এমন নির্বাচন নিয়েও বিএনপির অভিযোগের শেষ নেই। তাই তিনি বিএনপিকে মাঠ ছেড়ে না পালিয়ে নির্বাচনের মাঠে অংশ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বর্তমান সরকার দুর্যোগ মোকাবেলায় শতভাগ সক্ষম। প্রকৃতি সৃষ্ট দুর্যোগের মত শক্তভাবে মানব সৃষ্ট রোহিঙ্গা সমস্যাও সামাল দিতে পেরেছে সরকার।

দেশে অবস্থান করা অবস্থায় যদি কেউ রোগাক্রান্ত হয়, তাহলে তাকে সুস্থ করা সহজ। কিন্তু কেউ যদি বাইরের দেশ থেকে রোগ নিয়ে এদেশে প্রবেশ করে তখন সেই সমস্যা সমাধান করা অত্যন্ত কষ্টসাধ্য।

তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, নানা রোগব্যধি নিয়ে রাখাইন থেকে আসা এত বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাদের মধ্যে একজনও বিনা চিকিৎসায় মারা যায়নি। বিভিন্ন ধরণের ভ্যাকসিন ও চিকিৎসার মাধ্যমে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাদের রোগ নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরত পাঠাতে ইতোমধ্যে চুক্তি হয়ে গেছে। টাস্কফোর্সও দ্রুত তৈরি হয়ে যাচ্ছে। তিনি আশাবাদি, শিগগিরই রোহিঙ্গারা নিরাপদে সেই দেশে ফেরত যেতে পারবেন। এসময় মন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে কক্সবাজারবাসীর ত্যাগেরও ভুয়সী প্রশংসা করেন।

কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের চৌধুরী চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন, সিভিল সার্জন ডা. আব্দুস সালাম, কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুদান পাওয়া সাংবাদিক সাঈদ জালালসহ সাত সাংবাদিকের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। প্রতিজন সাংবাদিককে ৫০ হাজার টাকা করে মোট সাড়ে তিন লাখ টাকা দেওয়া হয়।

Be the first to write a comment.

Leave a Reply