আমিমের আর বাবা ডাকা হলো না

প্রকাশিত

মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:আমিমা বিনতে আমিম পৃথিবীর আলো দেখেছে মাত্র সাড়ে তিন মাস হলো তার মধ্যেই এক সড়ক দূর্ঘটনায় চিরদিনের জন্য হারিয়ে ফেলেছে তার বাবাকে। কোন দিন আর ডাকতে পারবে না বাবা বলে। মা ফারহানা জাহান মৌসুমি পাশে বসে মুখ লুকিয়ে ফুপিয়ে ফুপিয়ে কাঁদছে। দেখে মনে হচ্ছে পৃথিবীর সবচাইতে অসহায় এখন তিনি। ভয়ে কিছুক্ষন পর পর শুধু মেয়েকে বুকে জরিয়ে কাঁদছে। আর বলছে এমনতো কথা ছিলো না কি থেকে কি হয়ে গেলো। স্বামী প্রতিদিনের মতো আজও বাজারে যাচ্ছিলো বাজার করতে। কিছু বলার ছিলো কিন্তু বলা হলো না তার আগেই শুনতে পেলাম স্বামীর মৃত্যুর খবর।
বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলায় মুরাদনগর থানার সামনে মুরাদনগর-ইলিয়েটগঞ্জ সড়কে এক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন আমিনুল ইসলাম বেলাল(৩৮) নামে এক স্কুল শিক্ষক। এ ঘটনায় গাড়িসহ চালকের আসনে বসে থাকা হেলপারকে আটক করে পুলিশে দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা।
নিহত আমিনুল ইসলাম বেলাল উপজেলার ভূবনগর গ্রামের মৃত্যু দুধ মিয়ার ছেলে ও ভূবনগর গ্রামের রাইজিং সান কিন্ডা গার্ডেনের সাবেক প্রিন্সিপাল ছিলেন।
আটক হেলপার হাবিব(২০) জেলার দাউদকান্দি উপজেলার রায়পুর গ্রামের নাছির উদ্দিনের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শী মহসিন হায়দার জানায়, শিক্ষক আমিনুল ইসলাম বেলাল সকালে নিজ বাড়ি থেকে হেটে মুরাদনগর বাজারে আসছিল। মুরাদনগর থানার সামনে আসা মাত্র পিছন দিক থেকে আসা একটি ট্রাক (ঢাকা মোট্্েরা ট ১১-৬২৬৫) বেলালকে চাপা দেয়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তবরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষনা করেন।
এ বিষয়ে মুরাদনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো: আর্জুন জানান, এ ঘটনায় গাড়ি ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতের (মর্গে) প্রেরন করা হয়েছে। বর্তমানে মামলার প্রস্তুতি চলছে।