আম্ফানের তাণ্ডবে পিরোজপুরে ৩ জন নিহত

প্রকাশিত

পিরোজপুর প্রতিনিধি:-

পিরোজপুরে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে ৩ জন নিহত হয়েছে। জেলার মঠবাড়িয়ায় ২ জন ও ইন্দুরকানীতে ১ জন নিহত হয়েছে।

নিহতরা হলেন মঠবাড়িয়ায় দাউদখালী ইউনিয়নের গিলাবাদ গ্রামের মৃত মজিদ মোল্লার ছেলে শাহজাহান মোল্লা (৫৫), একই উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের দুপাদী গ্রামের মৃত মুজাহার আলীর স্ত্রী গলেনুর বেগম (৭০) । অন্যজন জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার উমিতপুর গ্রামে মৃত মতিউর রহমানের ছেলে শাহ আলম (৫৫) ।

জানা যায়, মঠবাড়িয়ায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে বৃষ্টিতে ভিজে নরম হওয়া দেয়ালে চাপা পড়ে বুধবার রাতে শাহজাহান মোল্লা (৫৫) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। তিনি মঠবাড়িয়া সরকারি কলেজের পিছনে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। বুধবার সন্ধ্যার পরে তিনি বাসায় যাওয়ার পথে দেয়াল ভেঙে তার ওপর পড়ে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

একই উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের দুপাদী গ্রামের মৃত মুজাহার আলীর স্ত্রী গলেনুর বেগম (৭০) পানিতে পড়ে গিয়ে মারা গেছেন । বুধবার রাতে উপজেলা বিভিন্ন স্থানে পানিতে তলিয়ে গেলে উচু স্থানে যাওয়া জন্য গলেনুর বেগম রওনা দিলে পানির স্রোতে পড়ে গিয়ে সেখানেই মারা যান। অন্যদিকে ইন্দুরকানী উপজেলার উমিতপুর গ্রামে মৃত মতিউর রহমানের ছেলে শাহ আলম (৫৫) ঘূর্ণিঝড়ের আম্ফানের প্রভাবে জোয়ারের পানির স্রোত দেখে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বুধবার তিনি যখন তার ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন হঠাৎ তার ঘরের খাটের চারপাশে পানিতে তলিয়ে যায়। এঘটনা দেখে সেখানেই তিনি মারা যান।

এছাড়া আম্ফানে ধান ও বিভিন্ন প্রজাতির রবি শস্যসহ কমপক্ষে ৫ হেক্টর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। অন্তত ১ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ ভেঙে ৩০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। আর ৬ হাজার ৭৫৫টি মাছের ঘের/পুকুর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে কাঁচাপাকা ২৫ কিলোমিটার রাস্তা। আর কাঁচাপাকা মিলিয়ে ২৩৪৫টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।