ইভ্যালিতে যমুনা গ্রুপের ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ, যা বলল দুদক

প্রকাশিত

দেশীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালিতে বিনিয়োগ করা হলেও প্রতিষ্ঠানটির অনিয়ম অনুসন্ধান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান বলছেন, নতুন বিনিয়োগ অনিয়মের অনুসন্ধানে বাধা হবে না। নীতিমালা অনুযায়ী বিনিয়োগ হয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে।

দুদকের এই আইনজীবী বলেন, ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরীন এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. রাসেলের বিরুদ্ধে গত নভেম্বর থেকে দুদকের অনুসন্ধান চলছে। তবে নতুন করে বিনিয়োগের ঘোষণা আসায় তাদের বিরুদ্ধে যে অনিয়মের অনুসন্ধান চলছে, তাতে কোনো প্রভাব পড়বে না। বরং বিনিয়োগ সত্ত্বেও তদন্ত অব্যাহত থাকবে। আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান আরো বলেন, একই সঙ্গে ইভ্যালি ডটকমের চেয়ারম্যান ও এমডির বিরুদ্ধে অর্থপাচার এবং অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের অনুসন্ধানও চলমান রয়েছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রতিবেদন প্রকাশের পর ইভ্যালি ডটকমের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে এবং এ নিয়ে নড়েচড়ে বসে দুদক। এই অবস্থার মধ্যেই গতকাল মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় শিল্প গ্রুপ যমুনার পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা ইভ্যালিতে ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে। তবে প্রাথমিকভাবে ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে প্রতিষ্ঠানটি। পরে ধাপে ধাপে বাকি বিভিন্ন পর্যায়ে মোট ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করার কথা জানায় যমুনা গ্রুপ।

প্রসঙ্গত, ইভ্যালি ডটকমের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান চলমান থাকায় প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আদালত।