ইসহাক সিকদারসহ পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে পটুয়াখালীর ইসহাক সিকদারসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করা হয়েছে।

সোমবার (১৩ আগস্ট) আন্তর্জাতিক মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এই রায় ঘোষণা করেন।

ইসহাক সিকদার ছাড়াও মৃত্যুদন্ঢপ্রাপ্ত অন্য চার আসামি হলেন- আব্দুল গণি হাওলাদার, আব্দুল আওয়াল ওরফে মৌলবী আওয়াল, আব্দুস সাত্তার প্যাদা ও সুলাইমান মৃধা।

আসামিদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল ১৫৯ পৃষ্ঠার রায় ঘোষণা করেন।

ট্রাইব্যুনালে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু, প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, মোখলেছুর রহমান বাদাল, সাবিনা ইয়াসমি, রেজিয়া সুলতানা প্রমুখ। অন্যদিকে আসামিদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আব্দুস সাত্তার পালোয়ান।

২০১৫ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ট্রাইব্যুনাল এই পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর পাঁচ আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে সংঘটিত হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগসহ ছয় ধরনের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা ও ১৭ জনকে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়। তাদের হাতে নির্যাতনের শিকারএখনও আট বীরাঙ্গনা জীবিত আছেন।

২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন।

গত বছরের ৮ মার্চ এ মামলার অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল।

পরে মামলায় উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে গত ৩০ মে মামলাটি যেকোনও দিন রায় দেওয়া হবে মর্মে অপেক্ষমান (বিএভি) রাখেন ট্রাইব্যুনাল। এরপর গত ১২ আগস্ট রায় ঘোষণার জন্য সোমবার (১৩ আগস্ট) দিন নির্ধারণ করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল।