এনামুল-মাশরাফিতে আবাহনীর পাঁচে-পাঁচ

প্রকাশিত

ক্রীড়া ডেস্ক : ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের পঞ্চম রাউন্ডেও জয় পেয়েছে আবাহনী লিমিটেড। আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪ নম্বর মাঠে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে ৪৭ রানে হারিয়েছে তারা। এর মধ্য দিয়ে লিগের পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিতেই জয় তুলে নিল আবাহনী লিমিটেড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
আবাহনী : ২৭০/৭ (৫০ ওভারে)
শেখ জামাল : ২২৩/১০ (৪৫.৩ ওভারে)
ফল : আবাহনী ৪৭ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা : মাশরাফি বিন মুর্তজা ও এনামুল হক বিজয় (আবাহনী)।

এমন জয়ে বল হাতে অবদান রেখেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ৮.৩ ওভার বল করে ১ মেডেনসহ ২৯ রান দিয়ে পাঁচ-পাঁচটি উইকেট নিয়েছেন তিনি। তার আগে ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি করেন এনামুল হক বিজয়।

বিকেএসপিতে আবাহনী প্রথমে ব্যাট করতে নামে। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়ের ১১৬, মোসাদ্দেক হোসেনের ৪৯, মেহেদী হাসান মিরাজের অপরাজিত ৩৪ ও সানজামুল ইসলামের অপরাজিত ২৪ রানে ভর করে ২৭০ রানের লড়াকু পুঁজি পায় আবাহনী। বল হাতে শেখ জামালের রবিউল হক ৩টি উইকেট নেন।

২৭১ রান তাড়া করতে নেমে শেখ জামালের পাঁচ ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের কোটায় রান করতে পারেন। বাকি ৬ জন দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেননি। সর্বোচ্চ ৮৩ রান করেন অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। ৬১ বল খেলে ১০টি চার ও ৪ ছক্কায় এই রান করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন এস সেক্সানা। ২৩ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৩১ রান করেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সৈকত আলী। ২৪টি রান আসে আল-ইমরানের ব্যাট থেকে।

শেখ জামালের ব্যাটসম্যানদের ঠিকমতো দাঁড়াতে দেননি আবাহনীর মাশরাফি বিন মুর্তজা। শুরুতেই শেখ জামালের উদ্বোধনী জুটি সাজঘরে ফিরিয়ে জোড়া উইকেট নেন। এরপর শেষ দিকে টেল এন্ডারদের গুঁড়িয়ে দিয়ে নেন আরো তিনটি উইকেট। তাতে ৮.৩ ওভার বল করে ১ মেডেনসহ ২৯ রান দিয়ে ৫টি উইকেট নেন বাংলাদেশ দলের এই অধিনায়ক। ২টি উইকেট নেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

অনবদ্য বোলিং ও ব্যাটিং করে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও এনামুল হক বিজয়।

এ জয়ের ফলে ৫ ম্যাচ থেকে পূর্ণ ১০ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে আবাহনী লিমিটেড। ৫ ম্যাচের ৩টিতে জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শেখ জামাল রয়েছে তৃতীয় স্থানে।