এবার সেই নোবিপ্রবি কর্মকর্তার মদপানের ছবি ভাইরাল

প্রকাশিত
নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস (ডিপিডি) ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাটের (৩৫) মদ পানের ছবি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে।শুক্রবার (১৯ জুন) সন্ধ্যায় রেদোয়ানুল করিম নামে এক আ’লীগ নেতা তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে সম্রাট মদ পানের ছবিটি পোস্ট দেয়।ছবিটি পোস্ট দেওয়ার সাথে সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয় আলোচনা ও সমালোচনা ঝড় এবং অল্প সময়ের মধ্যে ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে।ছবিতে দেখা যায়, সম্রাট একটি বড় ফসলি জমির পাশে পড়ে থাকা বৈদ্যুতিক খাম্বার ওপর বসে এক হাতে সিগারেট এক হাতে বিদেশী ব্যান্ডের মদের বোতল,চোখে কালো সানগ্লাস দিয়ে প্রকাশ্যে মদ পান করছে।
গত (১৭ জুন) রাত ১২টা ৮মিনিটের দিকে সম্রাট তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে নোয়াখালী জেলার সর্বত্র প্রতিবাদেও ঝড় উঠে এবং সম্রাটকে গ্রেফতারের আহ্বান জানান আ’লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।এদিকে শনিবার (১৯ জুন) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের শাহাজিরহাট সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদো জন্য আটক করে পুলিশ।
কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) টমাস বড়ুয়া দুপুর আড়াইটার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, তাকে লিখিত অভিযোগের আলোকে প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এই বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হওয়া ছাড়া এ বিষয়ে এখন আর কোন মন্তব্য করা যাচ্ছেনা। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।এর আগে, গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করার অভিযোগে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান সম্রাটের বিরুদ্ধে কবিরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন কবিরহাট উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো.নজরুল ইসলাম (৪৮)।
অভিযোগটিতে বিবাদী করা হয়েছে, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাটকে (৩৫)। সে কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তমপুর লামছি গ্রামের ইউছুফ ভূঁইয়ার ছেলে।লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, গত (১৭ জুন) রাত ১২টা ৮মিনিটের দিকে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাট তার নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট (সম্রাট এসএফ) থেকে ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ আজেবাজে স্ট্যাটাস দিয়ে ওবায়দুল কাদেরের দীর্ঘ দিনের অর্জিত মান সম্মান ক্ষুণ্ন করে। বিবাদী নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী পরিচালক পদে কর্মরত থাকা অবস্থায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে রাষ্ট্রীয় শিষ্টাচার বহির্ভূত আচরণ করেন। তার এমন আচরণে দলের ও প্রিয় নেতার সম্মান নষ্ট করায় বিবাদীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে জিয়াউর রহমান সম্রাটের ফোনে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ১৬ মিনিটের দিকে সম্রাট তার ফেইসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে লিখেন, প্রিয় নোয়াখালীবাসী,গতকাল রাতে আমার ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে আপত্তিকর একটা পোস্ট দেয়া হয়। পরে আইডি পুনরুদ্ধার করে আমি পোস্টটা ডিলিট করি। এমন অনাকাঙ্খিত বিষয়ে আমি বিব্রতবোধ করছি,সাথে দুঃখ ও প্রকাশ করছি।আমি মুজিব আর্দশের সৈনিক, নিজের থেকে পোস্ট দিলে আমি ডিলিট করতাম না। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। জয় বাংলা ,জয় বঙ্গবন্ধু।