ঐক্যের নামে অরাজকতা সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত
নওগাঁ প্রতিনিধি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন এমপি বলেছেন, ঐক্যের নামে ষড়যন্ত্র করে ধ্বংসাত্বক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না। আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অত্যান্ত সজাগ আছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অত্যান্ত দক্ষ ও বিচক্ষণতার সহিত কাজ করছেন। সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে তারা তৈরী আছেন।
রোববার দুপুরে নওগাঁর পত্নীতলা থানার ৬ষ্ঠ তলা বিশিষ্ট নতুন ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আগামী ৫০ বছরে যাতে কোন হাত দিতে না হয় এজন্য দেশে ১০১ টি আধুনিক থানা ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। আর প্রধানমন্ত্রী এ ডিজাইন করে দিয়েছেন। তাঁর ডিজাইন অনুসারে আধুনিক থানা ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। পরে তিনি থানা চত্বরে একটি বৃক্ষ রোপন করেন। বিকেলে উপজেলা পাবলিক মাঠে উপজেলা আওয়ামীলীগে সমাবেশে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি খোরশেদ আলম, জাতীয় সংসদের হুইপ শহীদুজ্জামান সরকার, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, নওগাঁ জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশিদুল হক ও রকিবুল আকতার, গণপূর্ত প্রকৌশলী ওসমান গণি, নওগাঁ সিভিল সার্জন মুনিমুল হক, নজিপুর পৌরসভা মেয়র রেজাউল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইসাহাক হোসেন, সাধারন সম্পাদক আব্দুল গাফফার প্রমূখ। এসময় পুলিশ বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ পুলিশের অর্থায়নে গণপূর্ত বিভাগ নওগাঁ প্রায় ৪ কোটি ১৩ লাখ ৬৯ হাজার ৪২ টাকা ব্যয়ে থানার ৬ষ্ঠ তলা ভিতের নতুন ভবন নির্মাণ এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। যেখানে থাকছে- নিচ তলায় ওসি রুম, সার্ভিস ডেলিভারি রুম, চাইল্ড ফিডিং রুম, ৪ জন সাব-ইন্সপেক্টর অফিস রুম, সিসিটিভি রু, ওয়ারলেস রুম, কনফারেন্স রুম, রেকর্ড রুম, মালখানা, কিচেন এবং ডাইনিং রুম এবং দ্বিতীয়তলায় পরিদর্শন রুম, ফার্ষ্ট এইড রুম, ইন্সপেক্টর রুম, সেকেন্ড অফিসার রুম, ইন্টারভিউ রুম, অবজারভেশন রুম, সাব-ইন্সপেক্টর অফিস রুম, ম্যাগাজিন রুম, পুরুষ হাজত খানা, মহিলা হাজত খানা ও শিশু হাজত খানা। কাজটি করছেন নওগাঁ শহরের বিশিষ্ট ঠিকাদার মেসার্স মাসুমা বেগম এর স্বত্ত্বাধিকারী মোস্তাফিজুর রহমান টুনু। আর এটি জেলার দ্বিতীয় আধুনিক থানা ভবন নির্মিত হচ্ছে।