ওসিকে টাকা দিতে না পারায় যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা!

প্রকাশিত
বেনাপোল,যশোর সংবাদদাতা: বেলাপোল পোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) ফিরোজের দাবি কৃত টাকা দিতে না পেরে বিষপান করে সাদিপুর ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি জামাল হোসেন (৪৫) আত্মহত্যা করেছে। সে শার্শা উপজেলার পোর্ট থানাধীন সাদিপুর গ্রামের মৃত্যু মোজাম্মেলের ছেলে।
এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, বেনাপোল পোর্ট থানার সাদিপুর গ্রামের জনৈক ডলার ব্যবসায়ী মুক্তারকে ধরতে সম্প্রতি বিজিবি ধাওয়া করে। এ ঘটনার বুধবার দিবাগত রাতে পোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) ফিরোজ আলম সন্দেহ মূলক জামালকে বাড়ি ধরে নিয়ে আসে। তবে জামালকে থানায় না নিয়ে। বেনাপোল হোটেল পর্যটনে রেখে নির্যতন শুরু করে ও তার পরিবারের কাছে ২০ লক্ষ টাকা দাবি করে।
দাবি কৃত টাকা না দিলে জামালকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। নির্যাতনের এক পর্যায়ে তার বুকে পিঠে এলোপাতাড়ি লাথি মারে ও আগুনের ছ্যাকা দেয়। এসময় জামাল হোসেনের গুরুতর আহত হয়। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ছেড়ে দেয়। এতে জামাল হোসেন ক্ষোভে দুঃখে অপমানে শুক্রবার দুপুরে বিষপান করে আত্মহত্যা করে।
এ ব্যপারে বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) ফিরোজ আলমের তার মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জামাল মারা গেছে আমি জানি না বলে ফোন কেটে দেয়। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার কেরে ময়না তদন্তর জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।