ককটেল বিস্ফোরনের অভিযোগে উপজেলা চেয়ারম্যানকে অভিযুক্ত করে মামলা

প্রকাশিত

বগুড়া প্রতিনিধ : বগুড়া গাবতলীর কাগইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক শফি আহম্মেদ স্বপনের বসতবাড়ীতে ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ এনে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শফি আহম্মেদ স্বপনের বাদীত্বে দায়েরকৃত মামলায় থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান মোরশেদ মিল্টনকে প্রধান অভিযুক্ত করা হয়েছে।
মামলার সূত্রে জানা যায়, ৪ সেপ্টেম্বর রাত অনুমান ৮টা ২৫মিনিটে গাবতলীর কাগইল ইউনিয়ন আ’লীগের আহবায়ক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শফি আহম্মেদ স্বপনের বসত বাড়ীতে পরপর ৩টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ সময় বাড়ীর সবাই ঘরের ভিতরে থাকায় কোন হতাহত হয়নি বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। পরে তাদের চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায় বলে মামলায় বলা হয়। এ সময় স্বপনের ঘরের টিভি, ফ্রিজ ও আলমারীর ক্ষতিসাধন হয় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় ৫ সেপ্টেম্বর শফি আহম্মেদ স্বপন বাদী হয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মোরশেদ মিল্টন, পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সভাপতি ডাঃ ছাবেদ আলী, কাইগইল ইউপি চেয়ারম্যান তপনসহ ৬২ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ৪০/৫০ জনকে অজ্ঞাত করে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে গাবতলী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে গাবতলী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, আমাদেরকে রাজনৈতিক ভাবে হয়রানী করার উদ্দেশ্যেই ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।