কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে ইত্যাদি

প্রকাশিত

ডেস্ক »

প্রতিটি পর্বে দেশের বিভিন্ন কৃষ্টি-সংস্কৃতি-ঐতিহ্যকে তুলে ধরছে ‘ইত্যাদি’। এবারের পর্বে ইত্যাদি গেছে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে। সেখানে ধারণকৃত বছরের শেষ পর্বটি দেখা যাবে আজ বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে রাত ৮টার সংবাদের পর। ইত্যাদির রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত।

অনেক প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে ইত্যাদির একেকটি পর্ব তুলে ধরা হয় দর্শকের সামনে। এবারেরটিও এর ব্যতিক্রম ছিল না। সৈকতের উঁচু-নিচু জায়গায় সেট ফেলে বিকেল থেকে রাত অবধি অক্লান্ত পরিশ্রম করে পর্বটি ধারণ করা হয়েছে। জোয়ার-ভাটার সময় মাথায় রেখে করা হয়েছে শুটিং। এর মধ্যেই কক্সবাজারের অনেক অজানা অনুপ্রেরণাদায়ক স্থান ও মানুষের গল্প উঠে এসেছে এবারের পর্বে। ১৩ ডিসেম্বর গোধূলিলগ্নে হিমছড়ি যাওয়ার পথে মেরিন ড্রাইভের পাশে দরিয়া নগরে সেট ফেলে শুরু হয় অনুষ্ঠানের দৃশ্যধারণ। তবে পরিশ্রম যে শুধু সেই এক দিনের ছিল, তা নয়। একটি পর্বের জন্য পুরো দলকে খাটতে হয় মাসের পর মাস।

এবারের ইত্যাদিতে নিয়মিত পর্বগুলোর পাশাপাশি থাকছে কক্সবাজারকে ঘিরে নানা অজানা বিস্ময়কর বিষয়ের ওপর প্রতিবেদন। থাকছে সাগরপাড়েই ‘মধু হই হই’ গান গেয়ে আলোচিত হওয়া বালক জাহিদ। রবি চৌধুরীর সঙ্গে ইত্যাদির মঞ্চে গান গেয়েছে সে। যাঁর মাধ্যমে জাহিদের আলোচিত হওয়া, সেই ইমরানও থাকছেন ইত্যাদির এবারের পর্বে। এ বিষয় নিয়ে হানিফ সংকেত বলেন, ‘জাহিদের সঙ্গে তার প্রতিভার উদ্ভাবক ইমরানও থাকবেন। আমরা চাই না কারও উদ্ভাবনের কৃতিত্ব কেড়ে নিতে। আমরা বরাবরই যথার্থ ব্যক্তিকে যথার্থ সম্মান প্রদর্শন করতে চাই।’

হানিফ সংকেত এবারের ইত্যাদির একটি অভিনব পরিবেশনার কথা জানান। সমুদ্রের ঢেউয়ের গর্জনের সঙ্গে যন্ত্রসংগীতের মিশেলে একটি কম্পোজিশন তৈরি করেছেন তিনি। এটি ভিন্নমাত্রা যোগ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। বরাবরের মতো এবারও ইত্যাদির শিল্প নির্দেশনা ও মঞ্চ পরিকল্পনায় ছিলেন মুকিমুল আনোয়ার। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন।

Be the first to write a comment.

Leave a Reply

m.me/channel6bdlive