করোনা রোগী প্রায় ৪০ শতাংশ সেরে উঠেছেন

প্রকাশিত

সাড়ে ৫১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৩২ হাজারের বেশি। তবে দ্রুত বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা। বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত ২০ লাখ ৫৫ হাজারের বেশি করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন। অর্থাৎ প্রায় ৪০ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

করোনা মহামারির সার্বক্ষণিক তথ্য প্রকাশ করছে ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফো। তাদের তথ্যমতে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সবচেয়ে নাকাল অবস্থা এখন যুক্তরাষ্ট্রের। সংক্রমণ ও মৃত্যুর হিসাবে দেশটি শীর্ষে রয়েছে। সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যার দিক থেকেও দেশটি শীর্ষে। সিএনএন জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে শনাক্ত হওয়া সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা গতকাল ১৬ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৯৫ হাজারের বেশি করোকরোনাভাইরাসের সংক্রমণে বিশ্বজুড়ে রোগীর সংখ্যা গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২ট নাগাদ না রোগীর। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লাখ ৭১ হাজারের বেশি রোগী। অর্থাৎ শনাক্ত হওয়া মোট রোগীর ২৩ শতাংশের বেশি সুস্থ হয়েছেন এ পর্যন্ত। দেশটিতে গত বুধবার ১ হাজার ৪০৩ জন করোনা রোগী মারা গেছেন।

রোগীর সংখ্যার দিক থেকে এখন যুক্তরাষ্ট্রের পরেই রাশিয়া। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, দেশটিতে গতকাল ৮ হাজার ৮৪৯ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে রাশিয়ায় শনাক্ত হওয়া করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৩ লাখ ১৭ হাজার ৫৫৪ হলো। দেশটিতে গতকাল মারা গেছেন ১২৭ জন। এ নিয়ে মৃত্যু হলো ৩ হাজার ৯৯ জনের। এ পর্যন্ত দেশটিতে ৯২ হাজারের বেশি, অর্থাৎ ২৯ শতাংশের বেশি রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ৩ লাখ ছুঁই ছুঁই। দেশটিতে বুধবার মারা গেছেন ৯১১ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেছেন ১৯ হাজারের বেশি। ব্রাজিলে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ১৬ হাজারের বেশি, যা মোট রোগীর প্রায় ৪০ শতাংশ। ব্রাজিলে বুধবার ২১ হাজার ৪৭২ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। দেশটিতে এ পর্যন্ত এ দিনই সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্ত হলেন।

যুক্তরাষ্ট্রে সুস্থ হয়েছেন ২৩ শতাংশের বেশি রোগী
রাশিয়ায় সুস্থ ২৯ শতাংশের বেশি
ভারতে ৪০ শতাংশের বেশি রোগী সুস্থ হয়েছেন
পাকিস্তানে সুস্থ হয়েছেন ২৯ শতাংশের বেশি

ইউরোপের দেশ স্পেনে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হওয়া রোগীর ৭০ শতাংশের বেশি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। দেশটিতে রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭৯ হাজারের বেশি। এর মধ্যে মৃত্যু ২৮ হাজার ছুঁই ছুঁই। সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৯৬ হাজারের বেশি রোগী। বুধবার দেশটিতে করোনায় ১১০ জন মারা গেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

করোনায় মৃত্যুর দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের পরই যুক্তরাজ্যের অবস্থান। বিবিসি জানায়, দেশটিতে গতকাল মৃত্যু ৩৬ হাজার ছাড়িয়েছে। এ পর্যন্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন আড়াই লাখের বেশি। গতকাল দেশটিতে ৩৩৮ জন মারা গেছেন। যুক্তরাজ্যে এ পর্যন্ত কতজন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন, তার সঠিক হিসাব পাওয়া যায়নি।

ইউরোপের আরেক দেশ ইতালিতে মহামারি নিয়ন্ত্রণে এলেও এখনো সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হচ্ছেন। করোনায় মৃত্যুও থেমে নেই দেশটিতে। এর মধ্যেই জনজীবন স্বাভাবিক করতে ধাপে ধাপে লকডাউন শিথিল করার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে চলেছে সরকার। দেশটিতে বুধবার করোনায় মারা গেছেন ১৬১ জন। এ নিয়ে ইতালিতে ৩২ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ২৭ হাজারের বেশি। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ৩২ হাজারের বেশি, অর্থাৎ ৫৮ শতাংশের বেশি রোগী।

তবে ইউরোপে রোগী সুস্থ হওয়ার হারে শীর্ষে রয়েছে জার্মানি। দেশটিতে ১ লাখ ৭৮ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৮ হাজার। অর্থাৎ ৮৮ শতাংশের বেশি রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন দেশটিতে। জার্মানিতে করোনায় এ পর্যন্ত প্রায় ৮ হাজার ৩০০ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

ইরানেও সুস্থ হয়ে ওঠার হার উল্লেখযোগ্য। দেশটিতে এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ২৯ হাজারের কিছু বেশি। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখের বেশি। অর্থাৎ প্রায় ৭৮ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৭ হাজার ২৪৯ জন।

প্রতিবেশী ভারতেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক রোগী সুস্থ হয়েছেন। এনডিটিভি জানায়, দেশটিতে গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত ১ লাখ ১৮ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪৮ হাজারের বেশি, অর্থাৎ ৪০ শতাংশের বেশি। তবে ভারতে এখন সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে দ্রুত। দেশটিতে গতকাল রাত পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ছয় হাজারের বেশি রোগী। এ দিন মারা গেছেন ১৫০ জন। এ নিয়ে মৃত্যু সাড়ে ৩ হাজার ছাড়িয়েছে।

পাকিস্তানে সুস্থ হয়েছেন মোট শনাক্ত রোগীর ২৯ শতাংশের বেশি। ডন জানায়, দেশটিতে গতকাল পর্যন্ত ৪৮ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১ হাজার ৪৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ হাজার ১৫৫ জন।