কালীগঞ্জে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা, আটক-১

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ পৌরসভার চৌড়া নয়াবাড়ী গ্রামে পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।
এজাহার সূত্রে জানা যায়, চৌড়া নয়াবাড়ী গ্রামের আব্দুল্লাহ ওরফে ফালাইন্নার ৫ বছর বয়সী কন্যা জোনাকী স্থানীয় চৌড়া নয়াবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণীর ছাত্রী। গত ৭ আগষ্ট দুুপুরে বিদ্যালয় থেকে বাড়ী ফিরে প্রতিবেশী জনির কন্যা মিথিলার (৬) সাথে খেলা করছিল। এসময় ৪ সন্তানের জনক প্রতিবেশী কালাই চন্দ্র সূত্রধর (৫৫) শিশু দু’টিকে লেবু দেওয়ার কথা বলে তার ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। কালাই নিজে বিবস্ত্র হয়ে পরে জোনাকীকে বিবস্ত্র করে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করলে মিথিলা ভয় পেয়ে ঘর থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে কালাই ঘটনা কাউকে না বলার জন্য হুমকি দিয়ে জোনাকীকে ছেড়ে দেয়।
জোনাকির বাবা আব্দুল্লাহ জানায়, আমার কন্যার উপর নির্যাতনের বিষয়টি স্ত্রী-কন্যার কাছে জানতে পেরে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানাই। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে একটি প্রভাবশালী চক্র তা ধামাচাপা দিতে রাতের আধারে আমার বাড়ীতে এসে থানায় মামলা না করতে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে। পরে আমি স্থানীয়দের সহযোগীতায় থানায় গেলে সেকেন্ড অফিসার এসআই মনিরুজ্জামান আমার কন্যার জবানবন্দি শুনে একটি লিখিত এজাহার দায়ের করতে বলেন। পরে এজাহার দায়ের করলে রাতেই পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করেন। এঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা নং ১১, তারিখঃ ১০/০৮/২০১৮ইং রজু হয়েছে।
ঘটনার স্বাক্ষী মিথিলা জানায়, আমি ও জোনাকী লতাদের বাড়ী খেলা করার সময় কালাই আমাদের লেবু দেওয়ার কথা বলে তার ঘরে নিয়ে যায়। পরে কালাই নিজে ল্যাংটা হয় ও জোনাকীকে ল্যাংটা করে মুখ চেপে ধরে খারাপ কাজ করার সময় আমি ভয় পেয়ে দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে যাই। পরে বাড়ী গিয়ে মায়ের কাছে সব কিছু বলে দেই।
মিথিলার মা প্রমিলা বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে আমার মেয়ে জানায়, কালাই তাদের দু’জনকে লেবু দেওয়ার কথা বলে ঘরে নিয়ে যায়। জোনাকীর মুখ চেপে ধরে খারাপ কাজ করার সময় আমার মেয়ে ভয় পেয়ে দৌড়ে পালিয়ে আসে।
এ বিষয়ে এসআই আবুল হাশেম জানান, শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীকে শনিবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
##