কুমিল্লায় সেপটিক ট্যাংকে গিয়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু

প্রকাশিত

কুমিল্লা প্রতিনিধি : কুমিল্লায় নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত এক শ্রমিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে নিহত দুই শ্রমিককে উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার কাজীপাড়া এলাকার ইতালি প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেনের নির্মাণাধীন ভবনে কাজ করার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুই শ্রমিকের বাড়ি রংপুর জেলায়।

নিহতদের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেলেও অপর নিহতের পরিচয় জানা যায়নি। এদের মধ্যে মারা যাওয়া ইয়াছিন (৩৫) রংপুর জেলার জলঢাকা উপজেলার শৈলমারী গ্রামের আজিজুর রহমানের ছেলে। এ ছাড়া, আহতের পরিচয় জানা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল স্টেশনের সহকারী পরিচালক মো. ইয়াহিয়া জানান, নির্মাণাধীন ভবনের কাজ করার সময় তিন শ্রমিক ওই ভবনের সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে নামেন। এ সময় বিষাক্ত গ্যাসে ওই ট্যাংকে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে দুই শ্রমিক মারা যান। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ফায়ার সার্ভিসের কুমিল্লা ইপিজেড ও চৌয়ারা ফায়ার স্টেশনসহ তিনটি ফায়ার স্টেশনের সদস্যরা উদ্ধার কাজে অংশ নেন।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি আদিল মাহমুদ বলেন, ইতালি প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেন গত ছয় মাস আগে তার দ্বিতল ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করেন। তিন ঠিকাদারের মাধ্যমে তার নির্মাণাধীন ভবনের কাজ করাচ্ছিলেন। ছয় মাস আগেই এই ভবনের সেপটিক ট্যাংক নির্মাণ করা হয়। এতদিন সেপটিক ট্যাংক পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল এবং এর ভেতর ভবনের কিছু নির্মাণ সামগ্রী রাখা ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় এগুলো পরিষ্কার করতে দুইজন শ্রমিক ভেতরে ঢুকেন। দীর্ঘক্ষণ তাদের কোনো সাড়া না পেয়ে আরেকজন ভেতরে প্রবেশ করে অসুস্থ হয়ে পড়লে লোকজন রশি দিয়ে তাকে উদ্ধার করে। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থল এসে দুইজনের লাশ উদ্ধার করেন।