কুমিল্লায় ৪২, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩৫, লক্ষ্মীপুরে ৩১, বান্দরবান ৪, নোয়াখালীতে ৫, ফেনী

প্রকাশিত

৪, চাঁদপুরে ১১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপুরে ৪৫, নেত্রকোনায় ২৫, শেরপুরে ২৩, ময়মনসিংহ জেলায় ১০৮ জনসহ মোট ২০১ জন আক্রান্ত।

বরিশাল বিভাগের বরিশাল জেলায় ৩৮, বরগুনায় ৩০, পটুয়াখালীতে ২০, পিরোজপুরে ৭, ভোলায় ২, ঝালকাঠিতে ৫ জনসহ মোট ১০২ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। সিলেটের মৌলভীবাজারে ১২, সুনামগঞ্জে ১৫, হবিগঞ্জে ৪৮, সিলেট জেলায় ১৪ জনসহ মোট ৮৯ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

রংপুরের গাইবান্ধায় ১৭, নীলফামারীতে ১০, লালমনিরহাটে ২, কুড়িগ্রামে ৬, দিনাজপুরে ১৪, ঠাকুরগাঁওয়ে ৮, রংপুর জেলায় ২১, পঞ্চগড়ে ৪ জনসহ মোট ৮২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে রাজশাহী জেলায় ১০, জয়পুরহাটে ১০, বগুড়ায় ১৭, নওগায় ১, সিরাজগঞ্জে ২, চাপাইনবাবগঞ্জে ২ ও পাবনায় ২ জনসহ মোট ৪৪ জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও খুলনায় ৮, যশোরে ২৬, ঝিনাইদহে ১১, চুয়াডাঙ্গায় ৮, বাগেরহাটে ১, মাগুরা ৪, মেহেরপুর ২, কুষ্টিয়া ১০ ও নড়াইলে ১৩ জনসহ মোট ৮৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর খবর পাওয়া গেছে।

করোনাভাইরাসে সারাবিশ্বের সাথে পাল্টে গেছে বাংলাদেশের জীবন যাত্রার চিত্র। সংক্রমণ ঠেকাতে দেশে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হয়েছে প্রায় ৩৮০টি উপজেলা, ৪৬টি জেলা ও ৩টি বিভাগ। করোনায় দেশ এখন কঠিন সময় পার করছে।