কোটচাঁদপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে ইট ভাটার মালিককে দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা-পালিয়ে গেলেন ভাটার মালিক ও ম্যানেজার

প্রকাশিত

জাহিদুর রহমান তারিক:ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর মকছেদ মোড়ে একটি ইট ভাটার মালিককে দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা করেছেন জেলার নিবার্হী ম্যাজিস্টেট। এ সময় ভাটার চিপনি ও কাঁচা ইট নষ্ট করেন। স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুওে ঝিনাইদহ জেলার নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির ষ্ট্রিপ, সাফদারপুর মকছেদ মোড়ের রিপন ব্রিক্সে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ সময় লাইসেন্স না থাকা, ব্যারেল চিমনি ব্যবহার করা,কাঠ পোড়ানো ও পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড় পত্র না থাকায় ভাটার মালিকের কাছ থেকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ সময় ভাটার কিছু কাঁচা ইট ও দুইটি চিমনি নষ্ট করেন। অভিযান চলার সময় উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলার পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র ক্যামিষ্ট্রি মিজানুর রহমান। এ ছাড়া অভিযান চলার সময় ছিলেন কোটচাঁদপুর থানা পুলিশ ও ফায়ার স্টেশনের সদস্যরা। এ সময় ভাটার মালিক ও ম্যানেজার পালিয়ে যায়। তবে রেহাই পায়নি জরিমানার হাত থেকে। প্রতিনিধি হিসেবে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন ও বাজার বনিক সমিতির সভাপতি আয়েস উদ্দিন। অপর দিকে আর এক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছেন নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও কোটচাঁদপর উপজেলা নিবার্হী অফিসার নাজনীন সুলতানা। ভোক্তা অধিকার আইনে সাবদারপুর বাজারের তিন দোকানে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে বিশ্বাস ফার্মেসী, সাইদ হোটেল, আনন্দের হোটেল। এই তিন দোকান থেকে ১০ হাজার ৫শত টাকা জরিমানা আদায় করেন।