খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুদক’র “জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট” মামলা নরসিংদীতে জেলা যুবলীগের আনন্দ-মিছিল

প্রকাশিত

এম.এ.সালাম রানা,নরসিংদী:নরসিংদী’তে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া’কে বিশেষ আদালতে “জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট” মামলায় ৫ বছরের কারাদন্ড দেয়ায় জেলা যুবলীগের উদ্যোগে শহরে বর্ণাঢ্য আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। নরসিংদী জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শামীম নেওয়াজের নেতৃত্বে জেলা মোস্লেহ উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়াম চত্বর থেকে আনন্দ মিছিলটি বের করে। অনুষ্ঠিত আনন্দ মিছিলটি শহরের জেলখানা মোড়, বাসাইল এলাকাসহ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। খালেদা জিয়ার রায় ঘোষনার পর স্থানীয় পুলিশ জেলার আইন-শৃংখলা বজায় রাখতে ঢাকা-সিলেট মহা-সড়কের উভয় পাশের সব ধরণের ব্যবসায়িক দোকান-পাট বন্ধ করে দিয়েছে। খালেদা জিয়ার রায় ঘোষনার প্রতিবাদে নরসিংদী জেলা বিএনপি ও অংগ-সংগঠণের নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে একটি প্রতিবাদ মিছিল বের হলে এতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশী বাধাঁর মূখে মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়।
৮ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে ভোর থেকেই জেলা শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লাসহ ঢাকা-সিলেট মহা-সড়কে পুলিশ কড়া-নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তোলে। এরই প্রেক্ষিতে নরসিংদী জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলার সাধারন মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। যার ফলে গুরুত্বপর্ণূ কাজ ব্যতিরেকে জেলা শহরে লোকজন স্বাভাবিক চলাফেরা করতে দেখা যায়নি। এদিকে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র পাল্টা-পাল্টি মাঠে থাকার ঘোষণায় সমস্ত জেলা জুড়ে সাধারন মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করে আসছিল। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী’র পূর্ব-ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী দেশের আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রনে রাখতে জেলার বিভিন্ন স্থানে পুলিশের চেকপোস্ট বসিয়ে মানুষজনসহ সকল প্রকার যানবাহনে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করা হয়। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীতে যাত্রী-সাধারণের উপস্থিতি থাকলেও দূর-পাল্লার যানবাহন না থাকায় যাত্রী-ভোগান্তি চরমে উঠে।
সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে দুদকে’র আনীত “জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট” মামলার রায়কে কেন্দ্র করে সকাল থেকে নরসিংদী-৪ আসনের সংসদ সদস্য এড. নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মতিন ভূইয়া, নরসিংদী পৌরসভার মেয়র কামরুজ্জামান, শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আমজাদ হোসেন বাচ্চু, জেলা যুবলীগের সভাপতি বিজয় গোস্বামী, সাধারন সম্পাদক শামীম নেওয়াজসহ সহ¯্রাধিক নেতা-কর্মীরা নরসিংদী স্টেডিয়াম চত্বরে অবস্থান করে। অপরদিকে নরসিংদীর বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা পরিষদের গ্রাম-পুলিশদের সঙ্গে নিয়ে রেল-সড়কের বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ায় নিয়োজিত ছিলেন।
পুলিশসূত্র জানায়, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে নরসিংদী’তে ৫ শতাধিক পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছে।