গাজীপুরের কালীগঞ্জে নদীতে নিখোঁজ শিশুরলাশ উদ্ধার

প্রকাশিত

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) সংবাদদাতা : গাজীপুরের কালীগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে কাপড় কাচতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার দুপুর দেড়টায় নিখোঁজ হওয়া ওই শিশুর লাশ রাত সাড়ে দশটায় দিকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল উদ্ধার করেন। নিহত শিশু সানজিদা আক্তার (৯) কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ভাদার্ত্তী (দক্ষিণ পাড়া) গ্রামের পারভেজ মিয়ার মেয়ে। সে স্থানীয় বেসরকারী স্কুল ইন্টারভিটায় তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ত। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সানজিদার বাবা-মা স্থানীয় হা-মীম গ্রুপের রিফাত গার্মেন্টসে চাকুরি করেন। প্রতিদিনের মত সানজিদার বাবা-মা সন্তানকে বাসায় রেখে কর্মস্থলে চলে যান। শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে সানজিদা প্রতিবেশী অন্য শিশুদের সাথে ভাদার্ত্তী পুরাতন এস.আর অফিস সংলগ্ন শীতলক্ষ্যা নদীর ঘাটে কাপড় কাচতে যায়। এক পর্যায়ে সানজিদা ঘাটে বসে থাকলেও সাথের শিশুরা গোসল করে বাড়ি চলে যায়। তারপর সন্ধ্যায় কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরে বাবা-মা মেয়ের কোন সন্ধান না পেয়ে নদীর ঘাটে গিয়ে পরিষ্কার করার জন্য নিয়ে যাওয়া জামা-কাপড় দেখতে পায়। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে কালীগঞ্জ ফায়ার স্টেশনে খবর দেওয়া হয়।
কালীগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ মো. আব্দুল সাত্তার মোল্লা জানান, ঘটনাস্থলে এসে তারা তল্লাসী চালান। কিন্তু তাদের স্টেশনের অধীনে কোন ডুবুরী না থাকায় টঙ্গী ফায়ার স্টেশনে ডুবুরীর জন্য খবর দেয়া হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে টঙ্গী থেকে ডুবুরীদল ঘাটের অদূরেই নদীর তলদেশ থেকে সানজিদার মরদেহ উদ্ধার করেন।